| |

পৌরসভার উদ্যোগে অবৈধ স্থাপনা ও ফুটপাত উচ্ছেদ অভিযানে সাত প্রতিষ্ঠানে জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরে অবৈধ ফুটপাত দখলদার, হকার উচ্ছেদ ও ভেজাল বিরোধী অভিযান গতকাল মঙ্গলবার থেকে (২১ মার্চ) শুরু হয়েছে। অভিযানে সাত দোকান মালিকের কাছ থেকে ১৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।
বিভাগীয় শহরের প্রাণ কেন্দ্র গাঙ্গিনার পাড়, স্টেশন রোড, সিকে ঘোষ রোড, ওল্ড পুলিশ ক্লাব রোড, ছোট বাজার, বড় বাজার, ট্রাংকপট্টি, দুর্গাবাড়ী, জেসি গুহ রোড, এবি গুহ রোড, জাদব লাহেড়ী লেন, মেছুয়া বাজার রোডসহ একাধিক রাস্তার সিংহভাগ বন্ধ করে দিয়ে সংশ্লিষ্ট কতক দোকান মালিক ও হকার শ্রেণীরা রাস্তায় অবৈধভাবে দোকান সাজিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। রাস্তার মধ্যভাগে অবৈধভাবে গড়ে উঠার দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সপ্তাহের প্রতিদিন গার্মেন্ট, কাপড়, জুতা, কসমেটিক, ফল, খাদ্য সামগ্রী বেচা কেনা করে আসছে।
শহরবাসীর মতে, ময়মনসিংহ পৌরসভা কর্তৃপক্ষ শহরের জলাবদ্ধতা নিরসন ও জনগণের চলাচল সুবিধা নিশ্চিত করে রাস্তার দুই পাশে উন্নত ড্রেন নির্মাণ এবং ড্রেনের উপর পায়ে হেটে জন চলাচল নিশ্চিত করতে স্ল­াব বসিয়ে দেয়। ব্যস্ততম শহরের এ সব এলাকার প্রায় বেশীরভাগ দোকান মালিকগণ তাদের দোকানের সামনে থাকা ড্রেন ও ড্রেনের উপরে থাকা স্ল­াব (মূল ফুটপাত) দখল করে নিজ নিজ দোকানের পণ্য বাইরে সাজিয়ে রাখছেন। এতে মানুষের চলাচলের জন্য পৌরসভার তৈরী ফুটপাত জবর দখলকারীদের নিয়ন্ত্রণে চলে যায়। এছাড়া জনচলাচলের রাস্তার সিংহভাগ জুড়ে ভাসমান হকাররা চৌকি, টেবিল বসিয়ে দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছে। এদিকে শহরের প্রায় সবগুলো দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণকালে কোন ধরণের আন্ডার গ্রাউন ফ্লোর বা যানবাহন বিশেষ করে মোটর সাইকেল ও প্রাইভেট কার রাখার কোন সুযোগ না রেখে ভবন ও দোকান নির্মাণ করা হয়েছে। ফলে ক্রেতা সাধারণ মোটর সাইকেল ও প্রাইভেট কার রাখছে পাকা রাস্তায়। দোকানীদের মূল ফুটপাত দখল, রাস্তা জুড়ে ফুটপাত গড়ে তুলে হকারদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং রাস্তার মাঝখানে মোটর সাইকেল রাখায় জন চলাচল দুর্বিসহ হয়ে পড়েছে। সাধারণ মানুষজন রিক্সা কিংবা অন্য কোন বাহনে শহরে চলাচল করতে পারছেনা। এ সব বিবেচনায় পৌর কর্তৃপক্ষ কয়েকবার উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করলেও যেই সেই। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার পৌর কর্তৃপক্ষ জেলা প্রশাসনের সহায়তায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ফয়সাল বিন করিম এর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে শহরের গাঙ্গিনার পাড়, রামবাবু রোড ও দুর্গাবাড়ী রোডেসহ বিভিন্ন রাস্তার সাত দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ১৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এ সময় পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা একেএম তারিকুল আলম, সেনিটারী ইন্সপেক্টর দীপক মজুমদার, আতাউর রহমার সুরুজসহ অন্যান্যরা সাথে ছিলেন। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে পৌর কর্তৃপক্ষ জানান।