| |

কাপাসিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে কৃষকের বাড়িতে হামলা, ভাংচুর লুটপাট গৃহবধূ’র শ্লীলতাহানী, আহত- ৩

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার টোক ইউনিয়নের ঘোষের কান্দি গ্রামে জমি সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চাচা সাহাব উদ্দিনের নেতৃত্বে ভাতিজা মানিক মিয়ার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর, লুটপাট ও গৃহবধূ’র শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। এতে মারাত্বক ভাবে আহত হয়ে গৃহকর্তা, তার স্ত্রী ও পুত্র উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে। এ ব্যাপারে গৃহকর্তা মানিক মিয়া বাদী হয়ে ১৯ অক্টোবর কাপাসিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।
জানা যায়, উপজেলার ঘোষের কান্দি গ্রামের কৃষক মানিক মিয়া ও তার চাচা সাহাব উদ্দিনের সাথে র্দীঘ দিন যাবত জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছে। এ নিয়ে ইতিপূর্বে আদালতে একাধিক মামলাও রয়েছে। গত ১৬ অক্টোবর সকালে ভাতিজা মানিক মিয়ার বাড়িতে চাচা সাহাব উদ্দিনের নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এতে সন্ত্রাসীদের এলোপাথারী মারধর ও তান্ডবে মানিক মিয়া (৪২), তার স্ত্রী রেখা আক্তার (৩৮), পুত্র রাকিব (২০) মারাত্বক ভাবে আহত হয়। সন্ত্রাসী হামলায় গৃহবধূ রেখা আক্তারের বাম হাত ভেঙ্গে যায় এবং রাকিবের মাথায় গুরুতর রক্তাক্ত জখম হয়। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় সন্ত্রাসীরা নগদ ২০ হাজার টাকা, স্বর্ণালংকার ও মূল্যবান কাপড়-চোপড় লুট করে নিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকে সাহাব উদ্দিন ও তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা কৃষক পরিবারকে মামলা না করতে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে।  এ ব্যাপারে কাপাসিয়া থানার এএসআই দুলাল মিয়া জমি সংক্রান্ত বিরোধের ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা স্বিকার করেন। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান। হামলাকারী চাচা সাহাব উদ্দিনের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি।  স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল হাসিম জানান, বিরোধপূর্ণ জমিতে সাহাব উদ্দিন জোর পূর্বক ঘর নিমার্ণ করতে চাইলে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ভাবে মিমাংসা করতে না পারায় উভয় পক্ষই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।