| |

ময়মনসিংহ শহরে পুলিশের অভিযান ঃ জঙ্গি সন্দেহে আটক-৭

স্টাফ রিপোর্টার ঃ পুলিশের একটি বিশেষ দল গতকাল সোমবার (৩ এপ্রিল) দুপুরে ময়মনসিংহ শহরের কালিবাড়ি রোডস্থ ১৭০/১ নং বাসায় অভিযান চালিয়ে ৭ জঙ্গীকে আটক করেছে। দুপুর ১২ টা থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত টানা ৩ ঘন্টার অভিযান কালে পুলিশ ওই জঙ্গী আস্তানা থেকে ২টি কম্পিউটার, আল আরাফা ব্যাংকে ৭০ লাখ টাকা লেনদেনের চেক বই, বিপুল জিহাদী বই, ডিভাইস, ক্যাবল, সুইচ, মটর সাইকেল ও বোমা তৈরীর সরঞ্জাম জব্দ করে। হাতে নাতে আটককৃত জঙ্গীরা হলো ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার দিঘীর পাড়া গ্রামের মারফত আলীর পুত্র শহীদুল ইসলাম (৩০), একই গ্রামের ইকবাল হোসেনের পুত্র আল আমীন (২৫), ধোবাউড়া উপজেলার ধারিয়াপাড়া গ্রামের আইন উদ্দিনের পুত্র আশিকুর রহমান (১৯), নেত্রকোনা জেলার পুর্বধলা উপজেলার জারিয়া বাজারের হাবিবুর রহমানের পুত্র মাসুম আহমেদ (৩০), একই এলাকার বোরহান উদ্দিনের পুত্র শাহ আলম হোসেন শামীম (২৭), একই এলাকার শেখ আবদুল লতিফের পুত্র রুমান মিয়া (২৭) ও মোহনগঞ্জ উপজেলার টেংরাপাড়া গ্রামের সবুজ মিয়ার পুত্র নাছির উদ্দিন (২৭)। একটি গোপন সুত্রের খবরে পুলিশ ময়মনসিংহ জজ কোটের সাবেক পিপি মরহুম এডভোকেট আনোয়ারুল কাদের এর পুত্র এডভোকেট আসিফ আনোয়ার মুরাদ এর ভাড়াদেয়া ওই বাসাটিতে সফল অভিযানটি চালায়। ময়মনসিংহ শহরে জঙ্গী আস্তানায় পুলিশের অভিযানের খবর ছাড়িয়ে পড়লে শহরজুড়ে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। শত শত জনতা ওই বাসাটির সামনে রাস্তায় ভীর করে। অভিযানে একই মালিকের আরো ২টি বাসায় তল্লাশী করা হয়। সফল অভিযানটির নেতৃত্ব দেন পুলিশ সুপার সৈয়দ নূরুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম, কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম ও ডিবি ওসি ইমারত হোসেন গাজী। অভিযান শুরু হলে ব্যার-১৪ এর একটি দলও অভিযানে অংশ নেয়। অভিযানের খবর পেয়ে পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন পিপিএম, অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া ও র‌্যাব-১৪ এর সিইও লে.কর্ণেল শরীফুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পুলিশ জানায়, আটক ৭ জঙ্গীর সবাই ধূর্ত প্রকৃতির ও প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত। কয়েকমাস আগে এরা বাসাটি ভাড়ানেয়। অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এদেরকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। পুলিশ আরো জানায়, জব্দকৃত কম্পিউটার ওপেন করে “ইসলামী রাষ্ট্র কায়েমই আমাদের লক্ষ্য” কথাটি বড় হরফে পাওয়াযায় এবং ডকুমেন্টে নানা জিহাদী কথাবার্তাও রয়েছে।