| |

কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম সমাবর্তন আজ উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ক্যাম্পাস জুড়ে উৎসবের আমেজ

রফিকুল ইসলাম শামীমঃ ময়মনসিংহের ত্রিশালে অবস্থিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম সমাবর্তন আজ। কবি নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনকে সামনে রেখে উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সমাবর্তন উদযাপনের সকল প্র¯ু‘তি সম্পন্ন হয়েছে।
কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের  প্রথম সমাবর্তনকে ঘিরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বত্রই চলছে উৎসবের আমেজ, নতুন সাজে সজ্জিত করা হয়েছে পুরো ক্যাম্পাস। নবীন-প্রবীন শিক্ষার্থীদের মিলনমেলায় মুখরিত হয়ে উঠেছে আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কৈশোর বয়সের পথ চলা ও বিচরনের চির সবুজ বর্তমানে এই কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসটি। কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনের ঘোষণা আসার পর থেকেই শিক্ষক কর্মকর্তা শিক্ষার্থীদের মাঝে উৎসবের উদ্দীপনা ছড়িয়ে পড়ে। আজ সমাবর্তনের সেই ক্ষন তাই এই সমাবর্তনকে ঘিরে চার দিকে বিরাজ করছে থৈ থৈ  উৎসব মুখর পরিবেশ।
আজ দুপুর আড়াইটায় অনুষ্ঠিত সমাবর্তনে সভাপতি হিসেবে উপস্থিত থেকে এর উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদ। সমাবর্তনে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন কবি নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড.মোহীত উল আলম।
সমাবর্তন বক্তার বক্তব্য রাখবেন ইমেরিটাস প্রফেসর ড.রফিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখবেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মুঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুল মান্নান। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর এএমএম শামসুর রহমান।
কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন ব্যবস্থাপনা কমিটির আহবায়কও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহীত উল আলম  বলেন কবি নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন উপলক্ষ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতিকে বরনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসকে সাজানো হয়েছে নতুন রঙ্গে। প্রথম সমাবর্তনকে কেন্দ্র করে মহামান্য রাষ্ট্রপতির আগমনে  শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক প্রান চাঞ্চল্য ফিরে এসেছে। সমাবর্তনকে ঘিরে বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, শিক্ষার্থীসহ সকল স্তরের মানুষের মাঝে উৎসাহ উদ্দীপনাসহ সকলের মাঝেই  সমাবর্তনকে  একটি বিশেষ উৎসব হিসেবে পালন করছে।
উপাচার্য্য প্রফেসর ড. মোহীত উল আলম আরো বলেন, প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে মহামান্য রাষ্ট্রপতি কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শত গ্র্যাজুয়েটের মাঝে  সনদ বিতরন করা হবে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বরধারী  ৩২ জন মেধাবী গ্র্যাজুয়েট কে রাষ্ট্রপতি স্বর্ণ পদক প্রদান করবেন।
বিশ^বিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন পুরাতন খেলার মাঠে সমাবর্তন অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হবে। শেষ হয়েছে স্টেজ ও প্যান্ডেল তৈরির কাজ। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে দুটি হেলিপ্যাড নির্মান করা হয়েছে। এই হেলিপ্যাডেই রাষ্ট্রপতিকে বহনকারী হেলিকপ্টার অবতরণ করবে বলে জানা গেছে। এদিকে রাষ্ট্রপতির আগমনকে কেন্দ্র করে বিশ^বিদ্যালয়ে নেয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ইতিমধ্যে সমাবর্তনে অংশগ্রহনকারী গ্র্যাজুয়েটগন নির্ধারিত বুথ থেকে আমন্ত্রনপত্র এবং একাডেমিক গাউন (পোষাক) সংগ্রহ করেছেন। সমাবর্তন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে গতকাল ১৮এপ্রিল সমাবর্তনে অংশগ্রহনকারী গ্র্যাজুয়েটদের সকাল ১০টা হতে ১১টা পর্যন্ত বিশ^বিদ্যালয়ের নতুন খেলার মাঠে রিহার্সেল (মহড়া) অনুষ্ঠিত হয়। ১৯ এপ্রিল বেলা ১২টা থেকে ১টা ৩০ মিনিটের মধ্যে সমাবর্তন অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করতে হবে। দুপুর ১টা ৩০ মিনিটের পর আর কাউকে সমাবেশ স্থলে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না বলেও জানিয়েছে বিশ^বিদ্যালয় কতৃপক্ষ।এ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ^বিদ্যালয় সমূহের উপাচার্য সহ ময়মনসিংহ বিভাগীয় সকল মন্ত্রী, এমপি, বর্তমান ও সাবেক মেয়র, আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, এবং সরকারের উর্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত থাকবেন।
কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী রাকিবুল হাসান রনি জানান-বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রথম ব্যাচের ছাত্র হিসাবে প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করতে পারছি বলে আমার খুব আনন্দ লাগছে, কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম ব্যাচের ছাত্র হতে পেরেও এখন নিজেকে গর্র্বিত মনে হচ্ছে।
ইব্রাহিম খলিল শান্ত জানান এ বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেছি এখানেই চাকুরী করে প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারছি  এটা আমার জীবনে অনেক আনন্দের পাওয়া।