| |

মদন-আটপাড়ায় প্রলয়ংকরী ঘুর্নিঝড়, ১৫টি গ্রামের বাড়ীঘর বিধ্বস্ত, নিহত-১, আহত-১৫

মদন প্রতিনিধিঃ নেত্রকোনার মদন ও আটপাড়া উপজেলার নায়েকপুর, ফতেপুর, তিয়শ্রী, গোবিন্দশ্রী, তেলিগাতী ও দুওজ ইউনিয়নের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া প্রলয়ংকরী ঘুর্ণিঝড়ে ১৫টি গ্রামের ঘরবাড়ী বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। ঝড়ে একজন মহিলা নিহত ও কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে।
নিহত হচ্ছেন- মদন উপজেলার কদমশ্রী গ্রামের মাজু মিয়ার স্ত্রী নুরনাহার বেগম (৪৫)। আহত মদন উপজেলার গঙ্গানগর গ্রামের সুলেমা, জোছনা আক্তার, কদমশ্রী গ্রামের জানু মিয়া, মাসুমকে মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুল কদ্দুছ।
মদন থানার ওসি মাজেদুর রহমান ও আটপাড়া থানার ওসি রমিজুল হক জানিয়েছেন, মদন ও আটপাড়া উপজেলায় ১৫টি গ্রামের ওপর দিয়ে ঘূর্ণিঝড় বয়ে যায়। এতে সহস্রাধিক কাঁচা ও আধাপাকা ঘরবাড়ি আংশিক ও সম্পূর্ণ বিধ্বস্থ হয়েছে। অন্তত তিন হাজার গাছ উপড়ে ভেঙ্গে গেছে।
ক্ষতিগ্রস্থ পুরো এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। বিভিন্নস্থানে বিদ্যুতের খুটি ভেঙ্গে গেছে ও বিদ্যুতের তারের ওপর গাছ ভেঙ্গে পড়ে থাকতে দেখা গেছে।
আটপাড়ার তেলিগাতী বাজারের ব্যবসায়ী টিটু খান জানান, আকস্মিকভাবে ঘুর্ণিঝড় শুরু হওয়ায়  ঘটনার সময়  মানুষ ভয়ে দিক-বিদিক ছুটাছুটি করতে দেখেছেন। তিনি বলেন, মিনিট পাঁচেকের এই ঘুর্ণিঝড়ে এলাকা লন্ডভন্ড হয়ে গেছে।
ঘূর্ণিঝড়ের পরপর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রশান্ত রায়, জেলা প্রশাসক ড. মুশফিকুর রহমান, উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের লোকজন ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় ছুটে যান।
জেলা প্রশাসক মুশফিকুর রহমান জানান, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতের পরিবারকে ১০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে। আহত ছয়জনকে পাঁচ হাজার টাকা করে সহায়তা দেয়া হয়। এছাড়াও প্রয়োজনীয় সহায়তা দেয়ার লক্ষে ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা করা হচ্ছে।
এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের কাছে ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো মেরামতে জেলা পরিষদ থেকে আর্থিক সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রশান্ত কুমার রায়।