| |

শিক্ষক অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

নেত্রকোনা জেলার দুর্গাপুর উপজেলার ফুলপুর সিনিয়র আলিম মাদ্রসার প্রভাষক উমর ফারুক একই মাদ্রাসার আলিম ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী লিপু আক্তার কে নিয়ে লাপাত্তা হওয়ায় এলাকায় চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ শিক্ষকের অপসারণ দাবিতে প্রতিবাদসভা ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে এলাকাবাসী।এমন শিক্ষকের হাত থেকে রেহায় পেতে ছাত্রছাত্রীরাও মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেছে। প্রতিবাদ সভায় বক্তার বলেন প্রাচীন এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুনাম নষ্টকারী এই শিক্ষকের অপসারণ না হলে আমরা এ প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রী দিবো না। ছাত্রছাত্রীবৃন্দ জানান আমার এখন মাদ্রাসায় আসতে পারছি না। বাবা মা তারা আমাদের উপর বিশ্বাস রাখতে পারছেন না। স্যার(ফারুক) আমাদের সর্বনাশ করে ফেলেছেন। এই শিক্ষকের অপসারণ চাই। তাছাড়াও তার দুটি মোবাইল নাম্বারের একটি দিয়ে ফেসবুকে দিয়ে সার্চ দিলে ফারিহা তাবাচ্ছুম নামের
প্রোপাইল পিকচার বিহীন একটি আইডি লক্ষ করা যায় এবং অপরটি দিয়ে দিলে প্রোপাইল পিকচার বিহীন তার নামে একটি আইডি লক্ষ করা যায় । মেয়ের নামে আইড খোলে সে তার নানা অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। পূর্বেও সে আরো তিনটি বিয়ে করেছে এবং স্ত্রীদেরকে তালাক দিয়েছে। ক্ষুব্ধ অভিভাবকবৃন্দ বলেন সে শুধূ এই প্রতিষ্ঠানেই নয় বাংলাদেশের কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যে এই শিক্ষক প্রবেশ করতে না পারে তার জন্য যথাযথ কৃর্তপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।
জানা যায় মেয়ের বাবা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা ইবনেসিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন । বাবার সেবার জন্য মা ঢাকা। এ সুযোগে উৎপেতে থাকা উমর ফারুক মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় পরিবারটি আরো ভেঙ্গে পরেছে। এ মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাহমুদুল হাসান জানান তার এই অপকর্মের জন্য আমরা তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছি।