| |

নান্দাইলে ছাত্রলীগে দু-গ্রুপে সংঘর্ষে ১০জন আহত ॥ ৪ রাউন্ড গুলি

নান্দাইল  প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের নান্দাইলে পৌর ছাত্র লীগ ও কলেজ ছাত্র লীগের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার ৯ অক্টোবর দুই গ্রুপের সংঘর্ষে এক পুলিশ কর্মকর্তা, এক সাংবাদিকসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ চার রাউন্ড গুলি করে। এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। নান্দাইল শহীদ স্মৃতি কলেজে আগামী ২০ অক্টোবর নবীণ বরন অনুষ্ঠান ও কনসার্ট করার জন্য চাঁদা তোলা শুরু হয়। কিন্তু চাঁদা তুলতে বাঁধা দেয় পৌর ছাত্রলীগের কর্মীরা। বিষয়টি নিয়ে রোববার কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিঠুর সাথে হাতাহাতি হয়। এছাড়া কলেজ ছাত্রলীগের সাথে পৌর ছাত্রলীগের কয়েক নেতা কলেজের কমন রুমে বসাকে কেন্দ্র করে বিরোধ তৈরি হয়। এর জের ধরে সোমবার সকালে কলেজ ছাত্রলীগ ও পৌর ছাত্রলীগ কলেজের সামনের এলাকায় মুখোমুখি সংঘর্ষে জড়ায়। এতে নান্দাইল থানার এসআই নুরুল হুদা, সাংবাদিক আলম ফরাজী, ছাত্রলীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম খাঁন, টিটু চন্দ্র দে সহ অন্তত ১০ জন আহত হন। তাদের স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। মারাত্মক আহত জাহিদুল ইসলাম খাঁনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৪ রাউন্ড গুলি করে বলে নান্দাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সরদার মোঃ ইউনুস আলী নিশ্চিত করেছেন। নান্দাইল শহীদ স্মৃতি আদর্শ কলেজের উপাধ্যক্ষ বাদল কুমার দত্ত বলেন, কলেজের কমন রুমে বসাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে জড়ায় দুই পক্ষ। এতে তাদের এক ছাত্র আহত হয়েছে। কলেজের অনুষ্ঠানের নামে চাঁদা তোলার অনুমতি তারা কাউকে দেননি। নান্দাইল মডেল থানার ওসি মো. ইউনুস আলী বলেন, কলেজের কমন রুমে বসাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের ২ পক্ষ সংঘর্ষে জড়ালে এক পুলিশ সদস্যসহ কয়েকজন আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ৪ রাউন্ড গুলি করা হয়। উল্লেখ্য বর্তমানে নান্দাইল উপজেলা ছাত্রলীগের কোন অনুমোদিত কমিটি নেই।