| |

ত্রিশালে ভ্রাম্যমান আদালতে জব্ধকৃত ধানবীজ ডিলারদের মাঝে বিক্রি

ত্রিশাল সংবাদদাতা ঃ ময়মনসিংহের ত্রিশালে বিএডিসি’র ২৮ ও ২৯ জাতের সরকারী ধানবীজ অবৈধভাবে বিক্রি করার জন্য নিয়ে আসা ১২শত বস্তা ধান বীজ কৃষকদের মাঝে ন্যার্য্য মূল্যে বিক্রির উদ্দের্শে ডিলারের মাঝে বিক্রি করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ ব্রীজ বিক্রি করা হয়।
জানাযায়, রোববার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুজাফর রিপন ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (দায়িত্বপ্রাপ্ত) মোঃ শাহাদুল ইসলাম অভিযান চালিয়ে পৌর শহরের পুরাতন ছাগল হাটা থেকে ধানবীজ ভর্তি একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-১৪২৭৩৪) ত্রিশাল থানায় নিয়ে আসে।
আটককৃত মালামালের জব্ধ তালিকা করে যাতে কৃষকরা ন্যার্য্য মূল্যে ধান ব্রীজ কিনতে পারে উপজেলার তালিকাভুক্ত ২২জন ডিলারের কাছে এ ব্রীজ বিক্রি করা হয়। বিক্রিকৃত ৫ লাখ ৩৮ হাজার ২শত টাকা ভ্রাম্যমান আদালতের বিধানে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেয়া হয়।
বুধবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ চত্বরে আনুষ্টানিক ভাবে আটককৃত বীজ ডিলারদের কাছে বিক্রি করেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু জাফর রিপন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (দায়িত্বপ্রাপ্ত) মোঃ শাহাদুল ইসলাম, উপজেলা ডিলার সমিতির সভাপতি বদরুল আলম রঞ্জু, ত্রিশাল প্রেসক্লাবের সভাপতি খোরশিদুল আলম মজিব, সহ সভাপতি রফিকুল ইসলাম শামীম প্রমূখ।
সার বীজ ডিলার গোলাম মোস্তফা জানান, আমরা সরকারের নির্ধারিত মুল্যে কৃষকদের মাঝেধানব্রীজ বিতরন করে আসছি। একশ্রেনীর অসাধূ ব্যবসায়ীরা বেশী দামে বিক্রির উদ্দের্শে বীজ পাচার করে বিক্রি কালে প্রশাসন আটক করে যা আমরা ডিলাররা প্রশাসনের কাছে থেকে কিনে কৃষকদের মাঝে চাহিদা মোতাবেক মাষ্টার রুল করে বিক্রি করবো।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (দায়িত্বপ্রাপ্ত) মোঃ শাহাদুল ইসলাম জানান, কৃষি বিভাগের উর্ধত্বন কর্মকর্তা ও ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে সরকারের তালিকাভুক্ত ডিলারদের কাছে বিক্রি করা হয়েছে। বীজগুলো ত্রিশালের প্রকৃত কৃষকরা যাতে ন্যার্য্য মূল্যে কিনতে পারে সে দিকে ও খেয়াল রাখা হবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুজাফর রিপন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পৌর শহরের পুরাতন ছাগল হাটায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালিয়ে ট্রাকটি আটক করা হয়। আটককৃত ধানব্রীজ বিক্রি করে আজই সরকারী কোষাগারে জমা করা হয়েছে। আটককৃত গাড়ি ও মালিককে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা আওতায় আনা হয়।