| |

ডিজিটাল সেন্টারের পরিচালকদের মানববন্ধন

ফুলবাড়ীয়া ব্যুরো অফিস : গতকাল শনিবার ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে ময়মনসিংহ জেলা ডিজিটাল সেন্টারের পরিচালক (উদ্যোক্তা) ফোরাম কর্তৃক ফালাক রেস্টুরেন্ট এর কনফারেন্স রুমে সকাল ১০ ঘটিকার সময় আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। অত:পর ডিজিটাল সেন্টার পরিচালকদের রাজস্বখাতে নেওয়ার দাবিতে প্রেসক্লাবের সম্মুখে মানববন্ধন করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা স্থানীয় সরকারের তৃণমূল প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম গতিশীল ও জনগণের দোড়গোরায় সেবা পৌছে দেওয়ার লক্ষ্যে ২০১০ সালের ১১ নভেম্বর তার কার্যালয় থেকে এবং নিউজিল্যান্ড এর সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচী (ইউএনডিপি) প্রশাসক মিস হেলেন ক্লার্ক ভোলা জেলার চরকুকরিমুকরি ইউনিয়ন থেকে ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে সারা দেশের সকল ইউনিয়ন পরিষদে একযোগে ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র উদ্ভোধন করেন। পরবর্তী সময়ে ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রটি ডিজিটাল সেন্টার নামে রূপ লাভ করে। উক্ত ডিজিটাল সেন্টারে একজন পুরুষ ও একজন নারী পরিচালক (উদ্যোক্তা) কর্মরত আছে। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় বক্তরা বলেন, তাদের কোন বেতন ভাতা না থাকলেও তারা ইউনিয়ন পরিষদের দাপ্তরিক কাজে সহযোগীতা করে আসছে। যার জন্য তাদেরকে ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম (এমআইএস) ট্রেনিং প্রদান করা হয়েছে। তারা বিনা পারিশ্রমিকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় জাতীয় তথ্য বাতায়ন (ন্যাশনাল ওয়েব প্রোর্টাল) তৈরি করেন। যার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ডড়ৎষফ ঝঁসসরঃ ড়হ ঃযব ওহভড়ৎসধঃরড়হ ঝড়পরবঃু (ডঝওঝ) পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। এই পরিচালকদের (উদ্যোক্তা) নিয়ে ২০১৪ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সম্মেলন করেন। তিনি যে সব আশ্বাস প্রদান করেছিলেন বাস্তবে তার প্রতিফলন না ঘটায় ইউডিসি পরিচালকরা হতাশ হয়েছে। এর পর থেকে সরকারি উদ্যোগে কোন প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন না হওয়ায় ডিজিটাল সেন্টারের পরিচালক ফোরামের উদ্যোগে প্রতি জেলায় একযোগে আলোচনা সভা ও মানববন্ধনের মাধ্যমে এ দিনটি উদযাপন করা হচ্ছে। উপরন্তু অসংখ্য পরিচালকদের ইউডিসি থেকে অন্যায়ভাবে বাহির করে দেওয়া হয়েছে। বর্তমান সরকারের প্রচেষ্টায় তথ্য প্রযুক্তির উৎকর্ষতা লাভ করায় যেকোন দোকানে বসেই ডিজিটাল সেবা পাওয়া যায়। ফলে ১১ হাজার পরিবার পথে বসতে চলেছে। তারা আরো বলেন, ইউনিয়ন পরিষদে নতুন জনবল নিয়োগের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করলেও তাদের নিয়োগের বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত না নেওয়ায় তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ডিজিটাল সেন্টার জাতীয়করণ করে পরিচালকদের রাজস্বখাতে নেওয়ার দাবিতে দীর্ঘদিন যাবৎ আন্দোলন সংগ্রাম করে আসছে। মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন মোঃ আশরাফুল ইসলাম চৌধুরী, (সাধারণ সম্পাদক) ডিজিটাল সেন্টার ময়মনসিংহ জেলা শাখা, মোঃ কামরুজ্জামান সুমন (কোষাধ্যক্ষ) , মোঃ রুহুল আমীন(দপ্তর সম্পাদক), মোঃ মোবারক, মোঃ নুরুল ইসলাম, মোঃ আঃ বারী সহ প্রমুখ।