| |

ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশের অভিযান ডাকাত-পুলিশে গুলিবিনিময় ঃ অস্ত্রশস্ত্রসহ গুলিবিদ্ধ ২ ডাকাত গ্রেফতার ঃ ৪ পুলিশ আহত

স্টাফ রিপোর্টার ঃ মযমনসিংহ ডিবি পুলিশের একটি দল মযমনসিংহের কোতোয়ালী মডেল থানার একটি মামলার তদন্তে প্রাপ্ত আসামী গ্রেফতারে গতকাল মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) ভোররাতের আড়াইটায় ত্রিশাল থানা এলাকায় অভিযান চালাতে গিয়ে থানাধীন দরিরামপুরের লোকদের ডাকাত ডাকাত চিৎকারে ধাওয়ায় প্রাইভেট কারে পলায়নকারী ডাকাতদের পিছু নেন। কিন্তু ডাকাতদের প্রাইভেট কারটি ময়মনসিংহের দিকে বেপরোয় চলতে থাকায় ডিবি পুলিশের দল তাদের নাগাল পাচ্ছিলনা। অবশেষে ভোর পোনে ৪ টায় ডাকাতরা তাদের গাড়ি থেকে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলী ছুড়ে। এ সময় নিজেদের রক্ষায় ও ডাকাতদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। পুলিশের গুলিতে ডাকাতদের গাড়ি চালক আহত হলে ওদের গাড়ি থেমে যায়। এর পরেও কয়েকমিনিট উভয় পক্ষে গুলি বিনিময় চলে। এক পর্যায়ে ডাকতরা পিছু হটে। পালানোর সময় ডিবি পুলিশ দল গুলিবিদ্ধ ২ ডাকাতকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। অন্যান্যরা পালিয়ে যায় । আশপাশের জনতা ছুটে এসে ভীর করলে ওই মুহুর্তে ঘটনাস্থল চুরখাইয়ের জামতলায় উপস্থিত ডিবি’র ওসি গুলি বিন্ধ ডাকাত দ্বয়কে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। একই সময়ে অভিযান টিম জনতার সহযোগিতায় ডাকাতদের গাড়ি ও আশপাশ তল্লাশী করে ১টি পাইপ গান, ৩ রাউন্ড কার্তুজ, ১টি রাম দা, ১টি চাপাতি, ১টি জগ, ১টি করে হাতুর-বাটল-রেঞ্জ প্ল­াস ও ১টি মোবাইল ফোন সেট উদ্ধার ও জব্দ করে। ডিবি’র এস আই মফিজুল ইসলাম, এস আই ফরুক আহমেদ ও এ এস আই শামীম হোসেনের নেতৃত্বে এই সফল অভিযানে গ্রেফতারকৃত ডাকাতদ্বয় হচ্ছে পটুয়াখালীর কলাপাড়া থানাধীন রজপাড়া গ্রামের আঃ বারেকের পুত্র মোঃ আলী হোসেন (২৯) ও ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট থানাধীন মনিকুড়া গ্রামের মৃত শাহজাহান এর পুত্র মোঃ রাজীব (২৬)। গুলি বিনিময় কালে ডাকাতদের কার্তুজের আঘাতে অভিযানে নেতৃত্বদানকারী ৩ কর্তা ও কং-১১৫৪ আবদুল বাতেন আহত হন।
উল্লেখ্য, ওই রাতের সোয়া ২ টায় ত্রিশালের দরিরামপুরের মোঃ রাকিব হাসান (৩০) নামের এক ব্যক্তি সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে তার বাড়ির সামনে একদল ডাকাত প্রাইভেট কারে এসে দাড়িয়েছে এবং ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে দেখে মোবাইল ফোনে এলাকার লোকজনদের জানিয়ে দেয়। লোকজনরা বিষয়টি ত্রিশাল থানা পুলিশে খবর দেয়। লোকজনেরা ডাকাত ডাকাত চিৎকারে গাড়ি ভর্তি ডাকাতদের ধাওয়া করে। তখন ধাওয়ায় যোগ দেয় ডিবি পুলিশ। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলে সাংবাদিকদের দেয়া এক প্রেসনোটে ডিবি পুলিশ জানায়।