| |

নান্দাইলে ইবতেদায়ী ও জেডিসি পরীক্ষার ফলাফলে শীর্ষে আপ্তাব উদ্দীন দাখিল মাদরাসা

ইছমত আরা বেগম ঃ ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার নিভৃত পল্লীতে সবুজ শ্যামলঘেরা নিরিবিলি পরিবেশে অবস্থিত আপ্তাব উদ্দীন দাখিল মাদরাসা। সুযোগ সুবিধা ও শিক্ষা উপকরণ সম্বলিত মাদরাসাটি প্রতিষ্ঠার দু বছরের মাঝেই ইবতেদায়ী সমাপনী ও জেডিসি পরীক্ষায় ইর্ষান্বিত সাফল্য অর্জন করে। এলাকাবাসীর অভিমত, অত্র মাদরাসার শিক্ষকরা যতœসহকারে পাঠদান দিয়ে থাকেন বলেই শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় ভাল ফলাফল। মাদরাসাটি তার বাবা বিশিষ্ট প্রবীণ আলেম, মাওলানা আপ্তাব উদ্দীনের নামে ২০১৩ সনে প্রতিষ্টা করেন, লুবনান কনর্সোটিয়াম গ্রুপ লিঃ এর চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জুনায়েদ। তিনি নিজে জমি ও অর্থ দিয়ে উপজেলার খারুয়া ইউনিয়নের মহেষকুড়া গ্রামে তার বাড়ি সংলগ্ন স্থাপন করেন মাদরাসাটি। তিনি প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে মাদরাসার জন্য সুরম্য ভবন নির্মাণ করে দিয়েছেন। মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড থেকে পাঠদানের অনুমতিও দেওয়া হয়েছে। দক্ষ ও মেধাবী শিক্ষকদ্বারা শিক্ষার্থীদের পাঠদান কার্যক্রম চলে। মাদরাসায় বর্তমানে ৪০০ ছাত্র ছাত্রী অধ্যায়ন করছে। ২১জন শিক্ষক বর্তমানে মাদরাসায় কর্মরত রয়েছেন বলে মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওঃ হাফেজ আব্দুস সাত্তার জানান।তিনি আরো জানান, মাদরাসাটি এখনো এমপিওভূক্ত না হওয়ায়, মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি সকল শিক্ষকের বেতন ভাতা ব্যক্তিগত ফান্ড থেকে প্রদান করে আসছেন। ২০১৭ ইং সনে অত্র মাদরাসা থেকে ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষায় শতভাগ পাশ করেছে। ১৯ জন ছাত্রছাত্রী ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে সবাই বৃত্তি লাভ করেছে। ১০ জন ট্যালেন্টফুল ও ৯ জন সাধারন গ্রেডে বৃত্তি পেয়েছে। জেডিসি পরীক্ষায় পাশের হার শতভাগ । ৪জন ট্যালেন্টফুল ও ১১জন সাধারন গ্রেডে বৃত্তি পায়। ফলাফলের দিক দিয়ে নান্দাইল উপজেলায় সকল মাদরাসাকে ডিঙ্গিয়ে ২০১৭ সনে শ্রেষ্টত্ব অর্জন করেছে। মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা মোহম্মদ জুনায়েদ বলেন, তিনি মাদরাসাটিকে ভবিষ্যতে অনার্সসহ কামিল পর্যন্ত উন্নীত করার আশাবাদী।