| |

মলমূত্র ছুড়েও পুলিশের হাত থেকে রেহাই পেলো না কুখ্যাত আলম চোরা!

সৌমিন খেলন : কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী আলম চোরা (৩০)।যার নাম শুনলেই ঘুম হারাম হয়ে যায় নেত্রকোনাবাসীর। তাকে ধরতে গিয়ে প্রতিবার আহত ও উদ্ভট সব পরিস্থিতির মুখোমুখি হন পুলিশ সদস্যরা। তার নামে জেলার দশটি থানায় রয়েছে মাদকসহ ডজন খানেক ঝুলছে চুরি মামলা। কিন্তু ইসব মামলার আসামি হয়েও থেমে নেই সে!

জেলার বিভিন্ন জায়গায় চুরি কর্মকান্ড সংগঠিত করাসহ ইচ্ছেমত চালিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসা। আলম চোরা শহরের মাদকজোন হিসেবে পরিচিত চকপাড়া এলাকার বাসিন্দা বাদল মিয়ার ছেলে।

বৃহস্পতিবার (০৩ মে) দিবাগত রাত দেড়টায় শহরের জয়নগর আধুনিক সদর হাসপাতাল রুট এলাকার একটি বাসায় চুরির প্রস্তুতিকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তবে তাকে গ্রেফতার করতে গিয়ে আবারও নতুন এবং তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা জানালেন মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. বোরহান উদ্দিন।

তিনি জানান, আলম চোরাকে রাতে ধরতে গেলে সে সকল পুলিশের শরীরে ব্যাগভর্তি মলমূত্র ছুড়ে দেন। এতে অভিযান টিমে থাকা পুলিশ সদস্যদের শরীর ও কাপড়চোপড় নষ্ট হয়ে যায়। এ অবস্থায় এলাকাবাসীর সহায়তায় তাকে ধাওয়া করে হেরোইনসহ গ্রেফতার করা হয়। এসময়ও সে শক্ত কাঠ দিয়ে পুলিশের ওপর হামলা করে।

আলম চোরাকে থানায় এনে শরীরের মলমূত্র পরিষ্কারের জন্য গোসলে করিয়ে দেয়া হয়। পরে মানবিক দিক বিবেচনায় ওসি বোরহান নিজের গামছা দিয়ে চোরার ভিজা শরীর মুছে দিয়ে নিজের ব্যবহৃত লুঙ্গি, শার্ট পড়িয়ে দেন।

এদিকে এসআই শাখাওয়াত হোসেন, আব্দুল্লাহ আল মাসুর, আব্দুল জলিল, তপন বাকালিসহ অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা অভিযানে অংশ নেন।