| |

বাজারে আসছে পেট্রোম্যাক্স এলপিজি

২৮ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে পেট্রোম্যাক্স এলপিজি এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নস্রুল হামিদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব আলহাজ্জ মাহফুজুর রাহমান মিতা, মাননীয় সংসদ সদস্য (চট্টগ্রাম-৩) ও বিশেষ অতিথি ডাঃ মোঃ হাবিবে মিল্লাত, মাননীয় সংসদ সদস্য (সিরাজগঞ্জ-২)। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পেট্রোম্যাক্স এলপিজির সম্মানিত ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব ফিরোজ আলম, পরিচালকবৃন্দ, পেট্রোম্যাক্স এলপিজির সকল কর্মীবৃন্দ, পরিবেশক ও তাদের প্রতিনিধিগণ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পেট্রোম্যাক্স এলপিজি এর চেয়ারম্যান জনাব রেজাকুল হায়দার বলেন ‘‘দেশের প্রাকৃতিক গ্যাসের ক্রমহ্রাসমান মজুদ হচ্ছে বর্তমানে জ্বালানি খাতের প্রধান চ্যালেঞ্জ। মূল্যবান এই প্রাকৃতিক গ্যাসের মজুদ সঠিক ভাবে ব্যবহার করার লক্ষ্যে গৃহস্থালি, গণপরিবহন ও যোগাযোগ ও শিল্প কারখানায় ব্যবহারের জন্য এলপি গ্যাস একটি সুন্দর সমাধান।”

গৃহস্থালি ও পরিবহন খাতে এলপি গ্যাস কে ইতিমধ্যে মাননীয় মন্ত্রী চৎরসধৎু ঋঁবষ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন।

পেট্রোম্যাক্স এলপিজি লিমিটেড এর বিনিয়োগে মংলা বন্দর এলাকায় প্রায় ৫৫০০ মে. টনের বেশি মজুদ ক্ষমতা সম্পন্ন ও বছরে প্রায় ৯০ লক্ষ সিলিন্ডার বোতলজাতকরণ ক্ষমতা সম্পন্ন এলপিজি প্ল্যান্ট স্থাপন করা হয়েছে। ঢাকা ও আশপাশের বাজার এর কথা মাথায় রেখে ঢাকার অদূরে রূপগঞ্জ নারায়নগঞ্জ এ একটি স্যাটেলাইট প্ল্যান্ট স্থাপন করা হচ্ছে যার মোট মজুদ ক্ষমতা প্রায় ১০২০ মে. টন। সিলিন্ডার এর আমদানি নির্ভরতা কমানো ও এলপি গ্যাস এর নিরবিচ্ছিন্ন সরবরাহ নিশ্চিত করতে পেট্রোম্যাক্স সিলিন্ডারস লিমিটেড এর বিনিয়োগে টাঙ্গাইল এ স্থাপন করা হয়েছে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন সিলিন্ডার উৎপাদনের অবকাঠামো যা বাৎসরিক প্রায় সাড়ে ৫ লাখের বেশি সিলিন্ডার তৈরি করতে সক্ষম। দেশব্যাপী নিরবিচ্ছিন্ন যোগান নিশ্চিত করতে ইতিমধ্যে প্রায় ২৫০ জন পরিবেশক নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে। আভ্যন্তরীণ পরিবহন সুনিশ্চিত করার লক্ষ্যে একটি এলপিজি বার্জ ও ৬ টি রোড ট্যাংকার ইতিমধ্যে সংযুক্ত করা হয়েছে।

১২ ও ৩৫ কেজির দুটি ভিন্ন মাপের সিলিন্ডারে এলপি গ্যাস বাজারজাত করবে পেট্রোম্যাক্স এলপিজি।