| |

ফুলবাড়ীয়ায় অপহৃত মেহেদী’র সন্ধানের দাবীতে সহপাঠীদের মানববন্ধন

মো: আব্দুস ছাত্তার : ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় ২ মাস ৫ দিন অতিবাহিত হলেও অপহৃত মেহেদী হাসানের সন্ধান না পাওয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টায় সহপাঠীরা ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। মানববন্ধনে পলাশীহাটা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, শাপলা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, পলাশীহাটা দাখিল মাদ্রাসার কয়েক হাজার ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, পরিচালনা কমিটির সদস্য, অপহৃতদের পিতা-মাতা, এলাকার সাধারন মানুষ অংশ নেন।
মানববন্ধনে অংশ নিয়ে বক্তারা বলেন, দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা মেহেদীর সন্ধান দিতে ব্যর্থ, তারা র‌্যাবের সাঁড়াশি অভিযান কামনা করেন। মানববন্ধনে যোগদেয়া মেহেদী হাসানের পিতা দুবাই প্রবাসী শাহজাহান বাকরুদ্ধ। মাতা মিনারা খাতুন কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে বলেন, আমার একমাত্র বাবারে তোমরা এনে দাও। তিনি সরকারের প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন।
মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন নাওগাও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, পলাশীহাটা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ এ.কে.এম শামছুল হক, পরিচালনা কমিটির সভাপতি ডাঃ তোফাজ্জল হোসেন, শামছুর রহমান সুমন, মুঞ্জুরুল হক।
গত ৬ মার্চ এস এস সি পরীক্ষা শেষে বাড়ী থেকে কেশরগঞ্জ বাজারে আসার কথা বলে আর বাড়ী ফিরেনি। এরপর মেহেদীর মোবাইল থেকে ৬ লাখ টাকা মুক্তিপন চেয়ে মা মিনারের মোবাইলে ম্যাসেঞ্জ দেয়া হয়। এরপর থেকে মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। ১২ মার্চ মেহেদীর মা বাদী হয়ে ফুলবাড়িয়া থানায় একটি অভিযোগ করে। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও পরিবার ও পুলিশ জানে না মেহেদী কোথায় আছে? অভিযোগটি ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়। ডিবি পুলিশ ঘটনার সন্দেহে পার্শ্ববর্তী গ্রামের গফুরের ছেলে তুষারকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তুষার জানায় মেহেদী তার সাথে ঢাকার মহাখালী পর্যন্ত একসাথে যাওয়ার পর গাড়ী থেকে নেমে পড়ে এর বেশি কিছু সে জানেনা।