| |

ঝিনাইগাতীতে পাল্টা পাল্টি বিক্ষোভ করেছে চাঁন এমপি ও হুইপ আতিকের অনুসারিরা

ঝিনাইগাতী(শেরপুর) সংবাদদাতা : শেরপুর জেলার আওয়ামীলীগের কোন্দল বরফ গলতে শুরু হলেও ঝিনাইগাতীতে কোন্দলের হাওয়া নতুন করে বইতে শুরু করেছে । দির্ঘ দিনের উপজেলা আওয়ামীলীগের কোন্দল প্রকাশ্যে রুপ নিচ্ছে ।
শেরপুর জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিক ও সাধারণ সম্পাদক এ্যাড: চন্দ্রন কুমার পাল পিপি জেলা আওয়ামীলীগের সিদ্ধান্ত মোতাবেক কৃষি মন্ত্রি বেগম মতিয়া চৌধরীকে প্রত্যাহার ও শেরপুর তিন আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম ফজলুল হক সহ ৪জনকে বহিস্কার করা হয় । সংবাদটি প্রিন্ট ,অনলাইন ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় প্রচার হওয়ার সাথে সাথে মতিয়ার অনুসারিরা ও হুইপ অনুসারিদের মাঝে উপজেলা পর্যায়ে পাল্টা পাল্টি বিক্ষোভ সমাবেশ জ্বালাময়ি স্লোগান দিয়ে উতপ্ত হয়ে উঠে জেলা সহ উপজেলার রাজপথ । এ নিয়ে টনকও নড়ে ঢকা বিভাগীয় দায়িত্বে থাকা আওয়ামীলীগের নিতীনির্ধারকদের । উভয়ের মধ্যে ২২ মে ঢাকায় সমস্যা সমাধানে বৈঠক চলা কালিন সময়ে ঝিনাইগাতী উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আবুল কালাম আজাদ ও যুগ্ন আহবায়ক শাহ আলমের নেতৃত্বে চাঁন এমপির বহিস্কারের প্রতিবাদে এক বিক্ষোভ শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করেন । ২৩ মে বুধবার উপজেলা আওয়ামীলীগের অফিস থেকে ইফতারের আগ মহুর্তে চাঁন এমপি ছাড়া নৌকা চাই, আওয়ামীলীগে ভোট চাই ইত্যাদি এমরি বিরুদ্ধে আপত্বিকর স্লোগান দিয়ে একটি বিক্ষোভ শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করেন । বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেন শী বিশ্বজিত রায়,হারুনূর রশিদ,আনার উল্লাহ চেয়ারম্যান, আউয়ুব আলী ফর্সা,আ: রহিম,হাবিবুর রহমন মন্টু,মজিবুর রহমান,শাহরিয়ার খান শাউন ও মোজাম্মেল হক প্রমুখ । কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অনুযায়ি বরফ গললেও একদিন পর এমপির বিরুদ্ধে উপজেলা আওয়ামীলীগের অফিস থেকে বাহির হওয়া বিক্ষোভটি রাজনৈতিক অঙ্গনে উতপ্ত হয়ে উঠেছে বলে সাধারণ আওয়ামীলীগ কর্মিরা জানান । সকালে এমপি ফজলুল হক চাঁন উপজেলা পরিষদে ও খাদ্য গুদামে একটি অনুষ্ঠান করে চলে যাওয়ার পর এ কর্মসূচি হাতে নিয়ে বিক্ষোভ করে উপজেলা আওয়ামীলীগ ।