| |

টাউন হল প্রাঙ্গনে এস.এস.সি ও এইচ.এস.সি’র কৃতি শিক্ষার্থীদের বর্নাঢ্য সংবর্ধনা শুধু চাকুরীর জন্য নয়, সুনাগরিক হওয়ার জন্য শিক্ষার প্রয়োজন ঃ জেলা পরিষদ প্রশাসক

রঞ্জন মজুমদার শিবু ঃ ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক বলেছেন শিক্ষার কোন বিকল্প নাই। আর এই শিক্ষা শধু একটি চাকরির জন্য নয়, একজন সুনাগরিক হওয়ার জন্যও শিক্ষার প্রয়োজন। বর্তমান সরকার শিক্ষা ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে। এই পরিবর্তনের ফলে শিক্ষার হারও বেড়েছে। তিনি শিক্ষার্থীদের বলেন শুধু বই পুস্তকের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলে চলবেনা এর বাইরেও একটি জগত আছে সেই দিকে নজর দিতে হবে। মনে রাখতে হবে সুস্থ্য দেহ সুস্থ্য মন এক না হলে সামনের দিকে এগুনো যাবেনা। শিক্ষার্থীদের এই অর্জনে শিক্ষকদের পাশাপাশি অভিভাবকদেরও ভূমিকা রয়েছে। আমি তোমাদের ভবিষ্যৎ উজ্জল কামনা করি। গতকাল শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) সকলে স্থানীয় টাউন হল চত্বরে ময়মনসিংহ পৌরসভা আয়োজিত ২০১৫ সনের এস.এস.সি ও এইচ এস.সি পরীক্ষায় জিপি এ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পৌর মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। তিনি বলেন, এই দেশকে স্বনির্ভর করার জন্য বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন হয়েছে। স্বাধীনতার কাংখিত ফলাফল অর্জনে বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া করে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে এবং প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে অগ্রনী ভূমিকা পালন করতে হবে। পাশাপাশি মানবিক গুনাবলির অধিকারী হতে হবে। সমাজে প্রতিষ্ঠা পেতে গেলে বিদ্যা ও বুদ্ধির যুদ্ধে নামতে হবে নিজেকে জানতে হবে। স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য একজন সঠিক মানুষ হিসাবে গড়ে উঠতে হবে। মাদক-সন্ত্রাস-দূর্নীতি থেকে দুরে থাকবে কেননা তোমরাই আগামীদিনের ভবিষ্যৎ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মুমিনুন্নিসা সরকারি মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ এন এম শাহজাহান সরকার, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ অধ্যক্ষ এ কে এম আব্দুর রফিক। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন পৌরসভাপ প্যানেল মেয়র-১ আসিফ হোসেন ডন, পেনেল মেয়র-২ নজরুল ইসলাম, অতিঃ পুলিশ সুপার আবু আহমেদ আল মামুন, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ কে এম তারিকুল আলম, সচিব জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহবুব আলম হেলাল। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার কাউন্সিলর বৃন্দ, সকল কর্মকর্তা কর্মচারী ছাড়াও শিক্ষক/শিক্ষীকা ও শিক্ষার্থী বৃন্দ। পৌরসভার অন্তর্গত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ১৩০০ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। সংবর্ধনা শেষে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের মাঝে র‌্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়। এতে ১৮টি পুরস্কারের মধ্যে ছিল ল্যাপটপ, মোবাইল সেট ও সাইন্টিফিক ক্যালকুলেটর। সবশেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।