| |

গৌরীপুরে গলাকেটে যুবক হত্যাকান্ডে ঘটনায় আসামীদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ লুটপাট ॥ গ্রেফতার-১

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা ॥
ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রহমত উল্লাহ কালাচান (১৯)কে গলাকেটে হত্যা করে লাশ পুকুরে ফেলে দেয়ার ঘটনায় জড়িত রকি দে ও তার বাবা-ভাইয়ের বাড়িঘরে শুক্রবার (১ জুন) সন্ধ্যায় ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে উত্তেজিত জনতা। হত্যার ঘটনায় নিহতের পিতা রেলওয়ে জংশনের ঝাড়–দার আব্দুল জলিল দয়াল বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার (৩১ মে) রাতে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেছে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বাড়িওয়ালাপাড়ার এ্যালবার্ট বাদল দে’র পুত্র রকি দে (২৩) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
শুক্রবার (১জুন) সন্ধ্যায় উত্তেজিত জনতা গ্রেফতারকৃত রকি দে’র বাবা-ভাইয়ের বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। হামলাকারীরা এ সময় খ্রীষ্ট ধর্মীয় প্রার্থনালয় গীর্জা তছনছ করার অভিযোগ করেন এ্যালবার্ট বাদল দে। তিনি জানান, বড় ছেলে রাকিব দে’র ঘরে ও আমার ঘরের দুইটি টেলিভিশন, ফ্রিজ ও আসবাবপত্র ভাংচুর, স্বর্ণালংকার, উন্নতজাতে দুইটি গরুসহ সহ প্রায় ৭লাখ টাকার মালামাল লুটপাট করেছে হামলাকারীরা।
গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার আহম্মদ জানান, দুর্বৃত্ত্বরা বাসা থেকে কালাচানকে ডেকে এনে জবাই করে। এরপর যুবকের লাশটি পুকুরে ফেলে দেয়। হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের পিতা আব্দুল জলিল দয়াল বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে বাড়িওয়ালাপাড়ার এ্যালবার্ট বাদল দে’র পুত্র রকি দে (২৩) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারেও অভিযান চলছে।
আব্দুল জলিল দয়াল জানান, বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে তার ছেলে নিখোঁজ ছিলো। বৃহস্পতিবার রেলওয়ে জংশন সংলগ্ন পুকুরে নেমে লাশ উল্টিয়ে দেখেন এ লাশ তার ছেলের। নিহত রহমত উল্লাহ কালাচান রেলওয়ে কোয়াটারে থাকতো। তার বাড়ি তারাকান্দা উপজেলার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের গয়ালপাড়া গ্রামে।##