| |

ময়মনসিংহ শহরের পুকুর রক্ষার দাবিতে মানব বন্ধন কর্মসূচি : জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি পেশ

স্টাফ রিপোর্টার : ময়মনসিংহ শহরের পুকুর গুলো রক্ষার জন্য মানব বন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে শহরবাসী। ‘আমরা হাতে গোনা কয়েকজন ময়মনসিংহবাসী’ সংগঠনের উদ্যোগে এ মানব বন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। গতকাল রবিবার ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে দুপুর ১২টা থেকে সাড়ে পর্যন্ত অনুষ্টিত মানব বন্ধনে শহরের বিভিণœ শ্রেণি পেশার মানুষজন স্বত:স্ফ’র্ত ভাবে অংশ গ্রহণ করেন। মানব বন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি পেশ করা হয়। জেলা প্রশাসকের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মহসীন স্মারক লিপি গ্রহণ করেন। সাংবাদিক নিয়ামুল কবীর সজল স্মারকলিপি পাঠ করেন।
স্মারকলিপিতে বলা হয়, ‘ময়মনসিংহ শহর উপ-মহাদেশের এক পুরানো শহর। নিকট অতীতেও এ শহরে অনেক বড় বড় ও গভীর পুকুর ছিল। এসব পুকুর ছিল সরকারি কিংবা ব্যক্তি মালিকাধীন। এসব পুকুরে লোকজন গোসল করতেন। অনেক পুকুরে মাছ ধরা হতো। অগ্নি কান্ডের সময়ও এসব পুকুর আগুন নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখতো। ফায়ার সার্ভিসের জন্য এ পুকুর গুলোর গুরুত্ব অপরিসীম।
সম্প্রতি শহরের হকার্স মার্কেটে আগুন লাগার ঘটনায় এ শহরে পুকুরের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে শহরবাসী নতুন ভাবতে শুরু করেছে। এদিক শহরের অনেক পুকুরই বেদখল, দখল বা ভরাট হয়ে গেছে। দু:খজনক বিষয় হলো পুকুর ভরাটের ঘটনা দিন দিন বেড়েই চলেছে। এ নিয়ে সরকারি দপ্তর গুলোর ভূমিকাও প্রশ্ন বোধক।
আমরা মনে করি শহরের পরিবেশ রক্ষায় এবং অগ্নিকান্ডের মতো অনাকাঙ্খিত দূর্ঘটনা রোধে পুকুর গুলোর প্রয়োজনীয়তা বিবেচনায় এখনই পুকুর রক্ষায় আমাদের সচেতন ও সোচ্চার হতে হবে। নাগরিক সমাজকেও সরব হতে হবে। প্রশাসনকে তৎপর হতে হবে। নইলে ভবিষ্যতে এক ভয়াবহ বিপর্যয়ের মাঝে আমাদের পড়ার সমূহ আশংকা রয়েছে।
তাই আপনার নিকট আমাদের বিনীত নিবেদন, আমরা এখনই এ ব্যাপারে আপনার প্রশাসনের পক্ষ থেকে উদ্যোগী ভূমিকা আশা করছি। প্রয়োজনে শহরের বিশিষ্টজনদের সাথে মত বিনিময় করে সকলকে পাশে নিয়ে আইনানুগ পথে অগ্রসর হওয়ার জন্যও আপনার প্রতি বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি’।
স্মারকলিপি গ্রহণ করে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মহসীন বলেন, শহরের পুকুর গুলো রক্ষায় তারা উদ্যোগ নিচ্ছেন। প্রয়োজনে শহরের নাগরিকদের সাথেও এ ব্যাপারে মত বিনিময় করা হবে।
মানব বন্ধন কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন নুরুল আমীন কালাম, শংকর সাহা, মাহবুব বিন ছাইফ, নজীব আশরাফ, প্রদীপ ভৌমিক, ফারুক খান পাঠান, ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার শরাফ উদ্দিন, ইয়াজদানী কোরায়শী কাজল, জয়দেব সাহা, আবু রেজা, রাসেল রনি, এমদাদুল হক মিল্লাত, নাছির উদ্দিন আহমদ, সৈয়দা সেলিমা আজাদ, নওশীন বৃষ্টি, ফারজানা মিল্কী, ফারুক হোসাইন, আলী ইউসুফ, পারভেজ, শহীদুর রহমান শহীদ, রজত কান্তি, লীলা রায়, শারমীন সাথী, শাহনাজ পারভীন শানু, অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান ফয়সাল, মাহবুর রহমান হৃদয়, শুভ্র চক্রবর্তী, রোকেয়া আফসারী শিখা, আব্দুল কাদের চৌধরী মুন্না, ফয়জুর রহমান ফয়েজ, মজিবর রহমান শেখ মিন্টু, জান্নাতুল ফেরদৌস রানু, জশিদা আক্তার কোহিনূর, মাইন উদ্দিন রায়হান, আব্দুল্লাহ আল আমীন, নুরুজ্জামান সেলিম, মোহাম্মদ কামাল, আবুল মনসুর প্রমুখ।