| |

কোতোয়ালী পুলিশের সাথে বন্ধুকযুদ্ধে মাক ব্যবসায়ী নোমান নিহত ঃ দুই পুলিশ আহত ঃ অস্ত্র গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ময়মনসিংহ সদরের রঘুরামপুরে সোমবার মধ্যরাতে পুলিশের সাথে বন্ধুকযুদ্ধে তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী আহসান উল্লাহ খান নোমান নিহত হয়েছে। এ সময় পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে চার রাউন্ড গুলির খোসা, ২টি চাপাতি, ১টি বড় চাকু ও সাড়ে চার শত পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক্রাইম এস এ নেওয়াজী জানান, ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ সড়কের সদর উপজেলার রঘুরামপুর নামক স্থানে সোমবার মধ্যরাতে মাদক ব্যবসায়ীরা নিজেদের মাঝে মাদক ভাগাভাগি করছে এ ধরণের সংবাদের ভিত্তিতে কোতোয়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি টিম অভিযানে যায়। ঘটনাস্থলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ এবং গুলি বর্ষন শুরু করে। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। উভয় পক্ষের মাঝে গুলি বিনিময়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলেও পুলিশের তালিকা ভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী আহসান উল্লাহ খান নোমান গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এ সময় পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চার রাউন্ড গুলির খোসা, ২টি চাপাতি, ১টি বড় চাকু ও ৪৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে। এছাড়া গুলিবিদ্ধ গুরুতর আহত মাদক ব্যবসায়ী নোমানকে পুলিশ উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। নিহত মাদক ব্যবসায়ী আহসান উল্লাহ নোমানের নামে কোতোয়ালী মডেল থানায় ৪টি গ্রেফতারি পরোয়ানাসহ ১৪টি মামলা রয়েছে। নিহত নোমানের বাসা শহরের সেনবাড়ি এলাকায় বলে পুলিশ জানিয়েছে। বন্ধুকযুদ্ধে নিহত মাদক ব্যবসায়ীর লাশ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। আহত দুই পুলিশ সদস্য পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।