| |

ফুলবাড়ীয়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ: থানায় মামলা

মো: আব্দুস ছাত্তার : ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার কৈয়ারচালা পূর্বপাড়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ৩ মাস যাবত ধর্ষণ করেছে প্রতিবেশি জয়নাল আবেদীনের ছেলে জাহিদুল ইসলাম। ধর্ষিতা থানায় উপস্থিত হয়ে ৩মাস বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের ঘটনার বর্ণনা করেন। লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে থানা পুলিশ ঐ রাতেই ধর্ষক জাহিদুল কেগ্রেফতার করে।

জানাযায়, কৈয়ারচালা পূর্বপাড়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসায় ভর্তি হওয়ার পর থেকেই লম্পট জাহিদুল তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু তাতে সে রাজি না হওয়ায় মাদ্রাসায় যাওয়া আসার পথে বিভিন্ন সময় রাস্তায় উত্ত্যক্ত করতো। জাহিদুলের পরিবারকে বিষয়টি জানানো হলে সে আরও বেপরোয়া হয়ে যায় এবং ঘরের জানালা খুলা পেয়ে ঘরে প্রবেশ করে আমার মুখ চেপে দরে আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জাহিদ বলে চিৎকার করলে মানুষ জানাজানি হলে আমিও বিয়ে করব না অন্য কোথায় তোমাকে বিয়ে দিতে পারবে না। এভাবে নিয়মিত আমার সাথে মেলামেশা করত, প্রতিবারে একটি করে বড়ি দিত খাওয়ার জন্য। গত ২২ জুন রাত ৯ ঘটিকার সময় বাড়ীর পূর্ব পার্শে দেখা করতে গেলে কথার এক ফাঁকে পকেট থেকে বিষের শিশি বের করে জোরপূর্বক মুখে বিষ ঢেলে দেয়। পরবর্তীতে বাবা-মা ও প্রতিবেশির সহযোগিতায় ধর্ষিতাকে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করালে ২৫ জুন চিকিৎসা শেষে বাড়ীতে ফিরে আসে। ২২ জুলাই থানায় লিখিত অভিযোগ করলে পুলিশ রাতেই জাহিদকে তার নানারবাড়ী একই উপজেলার ভবানীপুর থেকে গ্রেফতার করে। মামলা তুলে নেয়ার জন্য ধর্ষিতার পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে বলে ধর্ষিতার পিতা বাদল জানান।

থানা অফিসার ইনচার্জ শেখ কবিরুল ইসলাম জানান, ধর্ষিতার বর্ণনা অনুযায়ী ধর্ষক কে গ্রেফতার করে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।