| |

একই জমিতে একসাথে লাউ এবং আদা চাষ লাভ জনক

নকলা(শেরপুর) সংবাদদাতা:
নকলা উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদের তীরবর্তী সহ বিভিন্ন নদী ও খাল বিলের পার্শ্বের জমিতে শাক সবজি চাষের বিভিন্ন কৌশল ব্যবহার করে কৃষক লাভবান হচ্ছেন। ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে একটি গ্রামের নাম নারায়ণখোলা, এ গ্রামের সুরুজ আলী এবার ৩৫ শতাংশ জমিতে একই সাথে লাউ এবং আদা চাষ করেছেন। মাচায় লাউ এবং মাটিতে আদা এটি খুবই ফলপ্রসু বলে জানিয়েছেন সুরুজ আলী। ইতি মধ্যে তিনি গত ৩ বছরে এ পদ্ধতি অবলম্বন করে সংক্ষিপ্ত পরিসরে লাউ এবং আদা চাষের মাধ্যমে তিনি লাভবান হয়েছেন। এবছর তিনি ৩৫ শতাংশ জমিতে লাউ এর মাচার নিচে একই সাথে প্রায় ৫ মণ আদা লাগিয়েছেন। বর্তমানে লাউ এর মাচার নিচে কিছু আগাম লাউ ঝুলছে। একই সাথে রোপকৃত আদা গাছ গুলোও বেশ বড় হয়েছে।

গত ৩ বছরে তিনি সংক্ষিপ্ত পরিসরে এ পদ্ধতির চাষ করলেও এবার ৩৫ শতাংশ জমিতে একই সাথে লাউ ও আদা চাষ করেছেন। তার অনুসরণে এলাকার অন্যান্য কৃষকরাও ঝিঙ্গা, চাল কুমরা, লাউ, পটল ও শসার মাচার নিচে আদাসহ বিভিন্ন প্রকার সবজি চাষে উদ্ভোদ্ধ হচ্ছেন।

সুরুজ আলী জানান, তার ৩৫ শতাংশ জমিতে লাউ এবং আদা চাষ করেছেন। এখানে প্রতিদিন ৪-৫ জন শ্রমিক ২-৩শ টাকা বেতনে নিয়মিত কাজ করছে। সার প্রয়োগ, সেচ খরচ ও লেবার খরচ বাদে ৩৫ শতাংশ জমি থেকে তিনি ২ লক্ষাধিক টাকা উপার্জনের টার্গেট হয়েছে তার।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আব্দুল ওয়াদুদ ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির জানান, সুরুজ আলীর উদ্যোগটি খুবই ভালো, আমরা তার দেখবাল করছি। এ পদ্ধতিটির প্রতি এলাকার কৃষকদের আগ্রহী করে তুলতে আমাদের মাঠ কর্মীরা কাজ করছে।