| |

ধোবাউড়ায় বিদ্যুৎ সংযোগের নামে লাখ লাখ টাকা বানিজ্যের অভিযোগ,তদন্ত শুরু

ধোবাউড়া(ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ঃ
ধোবাউড়ায় নয়নকান্দি গ্রামের শফিউল আজম রাসেল নামে এক দালালের বিরুদ্ধে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে লাখ লাখ টাকা বানিজ্যের অভিযোগ করেছে এলাকাবাসী। ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি -৩ এর জেনারেল ম্যানেজার বরাবরে গণস্বাক্ষরে লিখিত অভিযোগ করেছে উপজেলার বাঘবেড় ইউনিয়নের গোস্তাবহলী ও সানন্দখিলা গ্রামের লোকজন। এবিষয়ে ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৩ এর উদ্যোগে তদন্ত শুরু হয়েছে।স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায় গোস্তাবহলী গ্রামে প্রতি মিটারে ৬ হাজার টাকা করে মোট ৩ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে রাসেল।এছাড়াও সানন্দখিলাসহ উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে দালাল চক্রটি। এদিকে ঘোষগাঁও ইউনিয়নের ভূইয়াপাড়া গ্রামে বানিজ্য করতে না পেরে চালুকৃত সংযোগ বন্ধ করে দিয়েছে কতিপয় দালাল। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন ভূইয়াপাড়া ও উত্তর ঝিগাতলা গ্রামে প্রায় সাড়ে ৭ কিলোমিটার এলাকায় বিদূৎ সংযোগের কাজ চলছে। কাজের সার্বিক তত্বাবধানে রয়েছে স্থানীয় আঃ খালেক পাঠান ও কিরন মাষ্টার। এখানেও সংযোগের নামে বানিজ্য করার অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।এরই মধ্যে ৩ টি ট্রান্সমিটারের আওতায় প্রায় ৭৪ টি মিটারে কাজ সম্পন্ন হলে বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে সংযোগ চালু করা হয়। কিন্তু একটি দালাল চক্র তাদের চাহিদা মোতাবেক টাকা হাতিয়ে নিতে না পেরে সংযোগটি বন্ধ করে দেয়। এ বিষয়ে এলাকায় চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। জানতে চাইলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ৩ এর এজিএম নাজমুল হক তারিক জানান তদন্ত হয়েছে রির্পোট ধোবাউড়া থানায় পাঠানো হবে,আর ভুইয়াপাড়া সংযোগের কাজটি সম্পূর্ণ না হওয়ায় সংযোগটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।