| |

কিশোরগঞ্জে পরীক্ষা হলে সন্ত্রাসীদের হামলায় দুই শিক্ষার্থী আহত, শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

নজরুল ইসলাম খায়রুল, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জ সদরের বৌলাইয়ে অবস্থিত সাস্ট ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি কেন্দ্রের পরীক্ষা হলে সন্ত্রাসী হামলায় দুই শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা কিশোরগঞ্জ-চামড়াবন্দর সড়ক প্রায় এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে।

গতকাল বৃহম্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কিশোরগঞ্জ সদরের বৌলাই এলাকার সাস্ট ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি নামক একটি প্রতিণ্ঠানে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কিশোরগঞ্জ সায়েন্স এন্ড মেডিকেল টেকনোলজির নার্সিং, ফিজিওথেরাপি ও ল্যাবরোটরি বিভাগের ব্যবহারিক পরীক্ষা চলছিল সদর উপজেলার বৌলাই এলাকায় সাস্ট ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি নামক একটি প্রতিষ্ঠানে। এ সময় বহিরাগত সতাল এলাকার ভাসানী মিয়ার ছেলে আব্দুর রহমানের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বাড়তি টাকা নেওয়ার অভিযোগ এনে প্রথমে শিক্ষকদের সাথে তর্ক শুরু করে। একপর্যায়ে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এতে রিয়াদ ও মনিকা নামে ফিজিওথেরাপি বিভাগের দু’জন পরীক্ষার্থী আহত হন।

ঘটনার পর শিক্ষার্থীরা কিশোরগঞ্জ-করিমগঞ্জ সড়কের বৌলাই সড়কে অবস্থান নিয়ে প্রায় এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে। এর ফলে দু’দিক থেকে বিভিন্ন যানবাহন আটকা পড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে বিচারের আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা অবরোধ তুলে নেন।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুশামা মো. ইকবাল হায়াত জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাহিমা আক্তার নামে এক শিক্ষার্থীকে থানায় নেওয়া হয়েছে। এ হামলার পিছনে তার ইন্ধন থাকতে পারে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা তাকে জানিয়েছেন।