| |

ধোবাউড়ার এক সময়ের বিপ্লবী সাংবাদিক অসুস্থ্য হয়ে এখন গৃহবন্দী

আবুল হাশেম,ধোবাউড়া ঃ
ধোবাউড়ার এক সময়ের বিপ্লবী সাংবাদিক শামসুল হক এখন অসুস্থ্য অবস্থায় গৃহবন্ধী হয়ে দিন কাটাচ্ছেন।তিনি ধোবাউড়া উপজেলার সর্বস্থরের মানুষের উন্নয়নের কথা লিখলেও এখন কেউ তার খোঁজ নেয়না। প্রায় ২০ বছর ধরে লাঙ্গলজোড়া গ্রামের সাংবাদিক শামসুল হক অসুস্থ্য অবস্থায় বিছানার সাথে লড়াই করছেন। তিনি মায়োফেটি নামক প্যারালাইসিসের মত একটি রোগে ভোগছেন।অভাব অনটনের মাধ্যমে জীবনের সাথে লড়াই করে পাননি সঠিক চিকিৎসা। ১৯৭৬ সালে তিনি সাংবাদিকতা জীবন শুরু করেন। তিনি একাধারে তৎকালীণ ময়মনসিংহের জনপ্রিয় পত্রিকা দৈনিক জাহানে ধোবাউড়া প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন।এছাড়াও আজকের স্মৃতি এবং ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক দেশ ও স্বদেশ সংবাদ পত্রিকায় কাজ করেছেন।রাস্তাঘাট,থানা ও উপজেলা প্রতিষ্টাসহ বিভিন্ন গুরত্বপূর্ণ সংবাদ প্রকাশে ধোবাউড়ার উন্নয়নে ভূমিকা রেখেছেন।তিনি ধোবাউড়া প্রেসক্লাবের তিনবার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।এছাড়াও সাংবাদিক ফোরামের আহবায়ক ছিলেন যা পরবর্তীতে প্রেসক্লাবে রুপ নিয়েছে।তিনি সাংবাদিক ছাড়াও ছিলেন সমাজকর্মী। ধোবাউড়া আদর্শ ডিগ্রি কলেজ প্রতিষ্টায় শামসুল হকের ছিল অগ্রনী ভূমিকা।এ ব্যাপারে ধোবাউড়া আদর্শ ডিগ্রি কলেজের সবেক অধ্যক্ষ আঃ মোতালেব তালুকদার বলেন ধোবাউড়া আদর্শ ডিগ্রি কলেজ প্রতিষ্টার প্রথম উদ্যোক্তা ছিলেন শামসুল হক।কলেজ প্রতিষ্টার জীবনীতে তার নাম রয়েছে। ধোবাউড়া প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আনিছুর রহমান মানিক বলেন শামসুল হক একজন সাহসী সাংবাদিকের পাশাপাশি ক্রিড়া,সাংস্কৃতি এবং সমাজকর্মী ছিলেন।অনেক সামাজিক কর্মকান্ডের সাথে তিনি জড়িত ছিলেন।