| |

কাল ময়মনসিংহে বাংলাদেশ- ভারতের ১৪ জেলার ডিসি ও ডিএম সীমান্ত সম্মেলন

রঞ্জন মজুমদার শিবু ঃ বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তবর্তী ক্লাস্টার ৮ এর আওতায় বাংলাদেশের ৭ ও ভারতের ৭ জেলাধীন সিমান্তের নানা সমস্যা নিয়ে জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেটদের দুই দিনব্যাপী সম্মেলন আগামীকাল ২ ডিসেম্বর বুধবার থেকে শুর হচ্ছে। ময়মনসিংহ শহরের খাগডহরের হোটেল সিলভার ক্যাসেলে দু’দিনের এ সীমান্ত সম্মেলন উপলক্ষে বাংলাদেশের পক্ষে টিমলিডার ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক গতকাল সোমবার বিকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সংবাদকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময় জেলা প্রশাসক মুস্তাকীম বিল্লাহ ফারুকী জানান, ভারতের ৩২ জন এবং বাংলাদেশের ৩০ জন কর্তকর্তা সীমান্ত সম্মেলনে অংশগ্রহন করবেন। সম্মেলনে সীমান্তে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান, সীমান্ত হাট, চোরাচালান ও মানবপাচার রোধ, অপরাধ প্রতিরোধ, সীমান্ত পিলার সমস্যা, বন্দিবিনিময়, কাঁটাতারের বেড়া, দুদেশের মাঝে সংস্কৃতি ও ক্রীড়া বিনিময় সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা স্থান পাবে। এ অঞ্চলে দুদেশের সীমান্তবর্তী ব্যবসায়ীদের মাঝে ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে ধোবাউড়ার ঘোষগাঁওয়ে সীমান্ত হাট চালু করা হতে পারে। সম্মেলনে বাংলাদেশের ৭ জেলা হচ্ছে-ময়মনসিংহ, জামালপুর, কুড়িগ্রাম, শেরপুর, নেত্রকোণা, সুনামগঞ্জ ও সিলেট। ভারতের ৭ জেলা হলো- ইস্ট খাসি হিলস্ শিলং, সাউথ ওয়েস্ট খাসি হিলস্, সাউথ গারো হিলস্, ওয়েস্ট গারো হিলস্, ইস্ট জয়ন্তিয়া হিলস্, ওয়েস্ট জয়ন্তিয়া হিলস্ ও সাউথ ওয়েস্ট গারো হিলস্। দুদেশের ১৪ জেলার জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ছাড়াও পুলিশ সুপার, বিজিবি, বিএসএফ প্রতিনিধি, রাজস্ব কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে।
সম্মেলনে বাংলাদেশের ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক ও টিমলিডার মুস্তাকীম বিল্লাহ ফারুকী, নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক ডঃ তরুণ কান্তি শিকদার, শেরপুর জেলা প্রশাসক ডঃ এ এম পারভেজ রহিম, জামালপুর জেলা প্রশাসক মোঃ শাহাব উদ্দিন খান, কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক খান মোঃ নুরুল আমিন, সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক এসকে রফিকুল ইসলাম ও সিলেট জেলা প্রশাসক মোঃ জয়নাল আবেদীনসহ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ সুপার, বিজিবি, রাজস্ব কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। এছাড়া ভারতের ইস্ট খাসি হিলস্ শিলং জেলা প্রশাসক শ্রী পি এস ধর, সাউথ ওয়েস্ট খাসি হিলস্ জেলা প্রশাসক আর এল ইয়ংধন, সাউথ গারো হিলস্ জেলা প্রশাসক সেল্লা নকরেক মারাক, ওয়েস্ট গারো হিলস্ জেলা প্রশাসক প্রবীন বকশী, ইস্ট জয়ন্তিয়া হিলস্ জেলা প্রশাসক ডব্লিউ. আর. ইয়াংদহ, ওয়েস্ট জয়ন্তিয়া হিলস্ জেলা প্রশাসক অরুন কুমার ও সাউথ ওয়েস্ট গারো হিলস্ অনিল কুমার সিংহসহ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ সুপার, বিএসএফ প্রতিনিধি, রাজস্ব কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা অংশ নেয়ার কথা রয়েছে।