| |

জামালপুরে জরাজীর্ণ পুলিশ ফাঁড়িটি সংস্কারের অভাবে বেহাল দশা

জামালপুর প্রতিনিধি॥জামালপুর পৌর শহরের ঐতিহ্যবাহী ২নং পুলিশ ফাঁড়ির ভবনটি দীর্ঘদিন যাবত অবহেলিত ও জরাজীর্ণ সংস্কারের অভাবে বেহাল দশা। জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর সংলগ্ন,জেলা কারাগারের সামনে অবস্থিত এই পুলিশ ফাঁড়িটি। দীর্ঘদিনের অবহেলিত ও জরাজীর্ণ অবস্থায় পড়ে থাকলেও কর্তৃপক্ষের নজরে আসেনি। দীর্ঘদিনের পুরনো এই পুলিশ ফাঁড়ির পূর্ব নাম ছিল সিংহজানি মহকুমা পুলিশ ফাঁড়ি। বর্তমানে নামের পরবর্তন হয়ে জামালপুর ২নং পুলিশ ফাঁড়ি করা হয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলে বিভিন্ন দিক উন্নয়ন হলেও ২নং পুলিশ ফাঁড়ির ভাগ্যের ছোঁয়া লাগেনি এতটুকুও। তবুও বিটিশ আমলে নির্মাণ করা পুলিশ ফাঁড়ি যেন কালে সাক্ষী হয়ে জরাজীর্ণ অবস্থায় দাঁড়িয়ে রয়েছে। এমন ঝুঁকি পূর্ণ ভবনেই নিজ দায়িত্ব পালন করে চলেছেন সেখানকার নিয়োজিত পুলিশ সদস্যরা।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অবকাঠামো উন্নয়নের দিক থেকে এই ফাঁড়িটির অবস্থান জরাজীর্ণ। দুই কক্ষ বিশিষ্ট টিনের চৌচালা ঘরটির একটিতে বসেন কর্মকর্তা ও অন্যটিতে পুলিশ সদস্যের থাকার ঘর। নেই কোন বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা,নেই কোন শোচাগার। বর্ষাকালে একটু বৃষ্টিতেই পানিতে সয়লাব হয়ে যায় ঘরের মেঝে। পুলিশ সদস্যরা দিনরাত পরিশ্রম করে মানুষের নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত থেকে অফিস করাসহ আবাসস্থলের এমন দৈন্যদশা পড়তে হয়। যা দেখে সত্যিই বিবেকবান লোকদের বিবেককে নাড়া দেয়।
এ পুলিশ ফাড়িতে বর্তমানে কর্মরত রয়েছেন, একজন পুলিশ ইন্সপেক্টর, একজন এসআই, একজন সার্জেন্ট, তিন জন টিএসআই, ২ জন এটিএসআইসহ ১১ জন পুরুষ কনস্টেবল এবং ২ জন মহিলা কনস্টেবল এছাড়াও রয়েছে মাস্টার রোলে একজন পরিচ্ছন্ন কর্মী। পুরুষ পুলিশ সদস্যরা কষ্ট শিকার করে এই ফাঁড়িতে থাকলেও মহিলাদের জন্য কোন থাকার ব্যবস্থা না থাকায় তাদের থাকতে হয় ভাড়াটে বাসায়। অবহেলিত এই ফাঁড়িটিকে উন্নয়নের আওতায় এনে কর্মজীবনের মানোন্নয়ন কল্পে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষসহ পুলিশ সুপার বিষয়টি সু নজরে নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবেন এমন প্রত্যাশা সকলের দাবী মাত্র।