| |

ময়মনসিংহে শতবর্ষী নাট্যমঞ্চে নাট্যোৎসব ২১০৯

রজত কান্তি দেবনাথ : বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে নাট্যশিল্প ও মঞ্চের শতবছরের যে ঐতিহ্য এবং ইতিহাস রয়েছে সেটি আগামী প্রজেন্মের কাছে তুলে ধরতে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি এক নান্দনিক উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এরই অংশ হিসেবে সারাদেশে ছাব্বিশটি জেলার ৩৫টি নাট্যমঞ্চে একসাথে এ নাট্যোৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সারাদেশের ন্যায় ময়মনসিংহে ১০ মার্চ ২০১৯ খ্রি. বিকেল ৫টায় শুরু হয়ে চলে ১১ মার্চ ২০১৯ পর্যন্ত। সংস্কৃতির চারণভূমি ময়মনসিংহের ঐতিহ্যম-িত কয়েকটি শতবর্ষী মঞ্চে নাটক মঞ্চস্থ হয়। ঐতিহ্যবাহী মঞ্চসমূহ হলো: টাউন হল প্রাঙ্গন, দুর্গাবাড়ি নাট্য মন্দির, অমরাবতী নাট্য মন্দির, এল.পি.মিশ্র ইনস্টিটিউট । জানা যায় এই মঞ্চসমূহে অনেক প্রাচীনকাল থেকেই নাট্যচর্চা হয়ে আসছে, কোনটা আবার দেড়শত বছর বা তারও বেশি ঐতিহ্য বহন করে চলেছে। দু’দিনের এই আয়োজনে টাউন হল প্রাঙ্গনে সারেং থিয়েটার, ময়মনসিংহ মঞ্চস্থ করে নাটক তাহাদের কথা: রচনা- নিজাম মল্লিক নিজু, নির্দেশনা- দেলোয়ার কবির দুলাল; বহুরূপী নাট্য সংস্থা মঞ্চস্থ করে নাটক বাঁওড়, রচনা ও নির্দেশনা- শাহাদাত হোসেন খান হিলু। দুর্গাবাড়ি নাট্য মন্দিরে বিদ্রোহী নাট্যগোষ্ঠী মঞ্চস্থ করে আজহার হাবলু রচিত ও নির্দের্শিত নাটক বর্ণচোরা; মুক্তবাক থিয়েটার মঞ্চস্থ করে অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমদ রচিত ও হাসিবুর রহমান তুষার নির্দেশিত নাটক কী চাহ শঙ্খচিল। অমরাবতী নাট্য মন্দির প্রাঙ্গনে রঙ্গভূমি থিয়েটার মঞ্চস্থ করে নাটক জননী জন্মভূমী, রচনা আছমা আক্তার লীজা, নির্দেশনা আনিসুজ্জামান হাসান; ময়মনসিংহ লোককৃষ্টি সংস্থা মঞ্চস্থ করে ডাঃ এম.এন. আমিন রচিত ও নির্দেশিত নাটক জহুরুল হক অতপর; ছায়ানট সাংস্কৃতিক সংস্থা মঞ্চস্থ করে নাটক ‘ক্ষ্যাপা নটের বয়ান’ গ্রন্থনা ও নির্দেশনা শরীফ মাহফুজুল হক আপেল। এল.পি.মিশ্র ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গনে অনসাম্বল থিয়েটার মঞ্চস্থ করে রওশন জান্নাত রুশনী রচিত-নির্দেশিত ও মোঃ আবুল মনসুর নির্দেশিত নাটক ‘বীরাঙ্গনার বয়ান’; জাগরনী নাট্য গোষ্ঠী মঞ্চস্থ করে উত্তম কুমার জয় রচিত ও উত্তম কুমার জয়-হালিমা শেখ প্রত্যাশা নির্দেশিত নাটক ৭১ এর ফুলবানু।
দু’দিনের আয়োজনে সংস্কৃতি অঙ্গনের অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। তন্মধ্যে জেলা আওয়ামীলীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী আজাদ জাহান শামীম, শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃক সম্মাননা প্রাপ্ত নাট্যজন অরবিন্দ সরকার জীবন, নাট্যজন নিজাম মল্লিক নিজু, স্বদেশ সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক জগদীশ চন্দ্র সরকার, নাট্যজন শাহ আজহার হাবলু, দুর্গাবাড়ী ধর্মসভার সভাপতি গবেষক অধ্যাপক বিমল কান্তি দে, পুজা উদযাপন পরিষদ ময়মনসিংহ মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক শংকর সাহা, শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃক সম্মাননা প্রাপ্ত নাট্যজন সাইফুল ইসলাম দুদু, নাট্যজন এড. আবুল কাশেম, শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃক সম্মাননা প্রাপ্ত উপস্থাপক সরওয়ার জাহান, নাট্যজন ডাঃ এম.এন আমিন, নাট্যশিল্পী পি.সি.লিটনসহ নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠকবৃন্দ।
সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার আরজু পারভেজ।