| |

পিবিআই জামালপুর কর্তৃক দীর্ঘদিনের পলাতক গরু চোর গ্রেফতার এবং মামলার মূল রহস্য উদঘাটন

স্টাফ রিপোর্টার ঃ গত ২৩ এপ্রিল শেরপুর সদর থানা হতে গরু চুরির মামলার আসামি লাভলু খান উরফে ডিবু (৩৩) কে গ্রেফতার করেছে পিবিআই জামালপুর টিম। পিবিআই জামালপুর জেলার দায়িত্বে অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার সীমা রাণী সরকার জানান যে, সাব-ইন্সপেক্টর মোঃ রফিকুল ইসলাম এর বিশেষ তৎপরতায় দীর্ঘদিনের পলাতক গরুচোর লাভলু খান ওরফে ডিবু’কে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ্দ করা হলে সে বিজ্ঞ আদালতে ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট নিজেকে জড়িয়ে অপর আসামী মোঃ আলামিন খান ওরফে ডানুর যোগসাজসে চুরির ঘটনার স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী প্রদান করে।
ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শেরপুর সদর থানাধীন হেরুয়া বালুরঘাট গ্রামের মোছাঃ মনোয়ারা বেগম মনু ৫ জনকে আসামী করে গত ১৩/০৪/১৮ ইং তারিখ শেরপুর সদর থানায় মামলা নং ৪২ দায়ের করেন। মামলার বিবরণে উল্লেখ্য করেন যে, গত ১১/০৪/১৮ ইং তারিখ সকালে তাঁর দুটি গরু চুরি হয়ে যায়। তাৎক্ষনিক ভাবে সে শ্রীবর্দী থানাকে গরু চুরির বিষয়টি অবহিত করলে শ্রীবর্দী থানার পুলিশ এলাকার ঝগড়ারচর বাজারে গরু চুরির তল্লাশীতে গেলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরেরা পালিয়ে যায়। পুলিশ একটি গরু উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে যায়। অপর দিকে আসামীদের বিরুদ্ধে কোনো সাক্ষী-প্রমাণ না থাকায় বিগত ২০/০৮/১৮ ইং তারিখে পুলিশ আসামীদের বিরুদ্ধে (ধারা-৪৫৪/৩৮০/৪১১/৩৪ দঃবিঃ) চূড়ান্ত রিপোর্ট সত্য প্রদান করলে বাদী মনোয়ারা বেগম নারাজীর আবেদন করে।
বিজ্ঞ আদালত বাদীর নারাজীর প্রেক্ষিতে পিবিআই জামালপুর কে পুণঃতদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন। বিগত ০২/১১/১৮ ইং তারিখ পিবিআই জামালপুর কর্তৃক মামলাটি গৃহীত হওয়ার পর বিশেষ পুলিশ সুপার সীমা রাণী সরকার-এর তত্বাবধানে সাব-ইন্সপেক্টর মোঃ রফিকুল ইসলাম মামলাটির তদন্ত করে আসামী লাভলু খান ওরফে ডিবু’কে ২৩/০৪/১৯ তারিখে গ্রেফতার করে এবং ২৪/০৪/১৯ তারিখে তাকে আদালতে সোপর্দ্দ করলে আসামী বিজ্ঞ ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট নিজেকে জড়িয়ে ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক বর্ণনা প্রদান করে এতে করে মামলার মূল রহস্য উদঘাটিত হয়।