| |

ভালুকায় পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ নিয়ে সংঘর্ষে দুই নারীসহ পাঁচজন আহত

নিজস্ব সংবাদদাতা ভালুকা ময়মনসিংহ ১৪ মে
ভালুকা উপজেলার পুরুড়া গ্রামে সোমবার বিকেলে পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ নিয়ে দুই পরিবারের মাঝে সংঘর্ষে বৃদ্ধাসহ উভয় পরিবারের পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতদেরকে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেøেক্স ভর্তি করা হয়েছে।
জানাযায়,তিন বছর পূর্বে পুরুড়া গ্রামের আশরাফুল,মনিরসহ চারজনে নিজ বাড়িতে ব্যক্তিগত ব্যয়ে প্রায় একলাখ ৫০হাজার টাকা দিয়ে বিদ্যুত সংযোগ নেন। ওই বিদ্যুতের খুঁটি থেকে প্রতিবেশি শামীম ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এ একটি সংযোগের জন্য আবেদন করেন। ঘটনার দিন দুপুরে পল্লী বিদ্যুতের লাইনম্যান সংযোগ দিতে গেলে আশরাফুল,শামীমের কাছে পঞ্চাশ হাজার টাকা দাবী করেন। সেই টাকা দিতে অস্বীকার করলে দুই পরিবারের মাঝে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এতে দুই পরিবারের দুই নারী সহ পাঁচ জন আহত হয়। আহতরা হলেন, শামীম(৩০),তাঁর বড় ভাই রুহুল আমীন (৩২) তার মা মজিদা খাতুন (৮০),মনিরুল ইসলাম (২৮) ও শাহনাজ আক্তার পলি (২৫)। আহত পাঁচজনকে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেøেক্স ভর্তি রয়েছে। এ ঘটনায় রুহুল আমীন বাদী হয়ে ছয় জনকে আসামী করে ভালুকা মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
শামীম বলেন,তারা যখন বিদ্যুতের লাইট টানে তখন আমার কাছে টাকা ছিল না।পরে আমি আশরাফুলকে বিশ হাজার টাকা সাধলে সেই টাকা নিতে অস্বীকার করে। আমি বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য আবেদন করলে অফিস থেকে আমার ঘরের সংযোগ দিতে গেলে আশরাফুলের নেতৃত্বে বাঁধা দেয় এ নিয়ে সংঘর্ষ হয়। এত আমার বৃদ্ধা মা সহ আমরা তিনজন আহত হই।
আশরাফুল বলেন,আমার ৪জনে মিলে বিদ্যুতের লাইন কিনে এনেছি আমরা তাঁকে লাইন দেব না।
ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম জানান,যদি কেউ আমাদের কাছ থেকে ব্যক্তিগত ব্যয়ে সংযোগ নেন পরবর্তীতে কোনো গ্রাহক ওই লাইন থেকে সংযোগ নিতে চাইলে যিনি লাইন কিনে নিয়েছেন তিনি কোন ক্রমেই বাঁধা দিতে পারবেন না। বাঁধা দেয়া সম্পূর্ণ বেআইনি।