| |

বর্ণাঢ্য আয়োজনে শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রিতিতে বিশ্বাস করে- প্রতিমন্ত্রী শরীফ

স্টাফ রিপোর্টার ঃ সারা দেশের ন্যায় ময়মনসিংহের হিন্দু সম্প্রদায় ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার রথযাত্রা উৎসব উদযাপন করেছেন।
এদিন ইসকনের উদ্যোগে বিকেলে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন পার্ক প্রাঙ্গণ থেকে বর্নাঢ্য আয়োজনে রথ টান দেয়া হয়। রথ টান দিয়ে কাঁচিঝুলি, টাউনহল মোড়, নতুন বাজার, গাঙ্গিনার পাড়, স্টেশন গেইট, জে.সি গুহ রোড, পাটগুদাম র‌্যালীর মোড়, কোতোয়ালী থানা, জুবিলী রোড, কাচারী মোড় হয়ে ওই পার্কে গিয়ে শেষ হয়।
রথ টানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সমাজ কল্যান প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপি ও ময়মনসিংহ নগরীর মেয়র ইকরামুল হক টিটু।
জগন্নাথদেবের রথযাত্রা উৎসবের রথটানের প্রাক্কালে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন সমাজ কল্যান মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এম,পি। তিনি বলেন ধর্ম যার যার উৎসব সবার এই শ্লোগান শেখ হাসিনার শ্লোগান। এই শ্লোগানকে সামনে নিয়েই আমরা এগিয়ে যাই। আওয়ামী লীগ সরকার যতবার ক্ষমতায় এসেছেন দেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করেছে। তিনি বলেন শেখ হাসিনা সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রিতিতে বিশ্বাস করে। ধর্মীয় আচার আচরনে আওয়ামী লীগ সরকার সবসময় পাশে থাকে। রথযাত্রা উৎসব আমাদের সকলকে মিলন মেলায় পরিনত করে। রথযাত্রা উৎসবের উদ্ভোধন ঘোষনা করে বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। তিনি বলেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রিতির দেশ বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সোনার বাংলা গড়ার যে স্বপ্ন দেখেছিলেন সেই স্বপ্ন বর্তমান সফল প্রধানমন্ত্রী বাস্তবায়ন করছেন। ইতিমধ্যেই তিনি মঠ মন্দির উন্নয়নের জন্যে দুইশত কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন। ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন মন্দির, শ্মশ্বানঘাট উন্নয়ন ও নির্মাণ করে যাচ্ছে। রথযাত্রা উৎসব আমাদের ঐতিহ্যের একটি উৎসব। ইসকন ময়মনসিংহ এর অধ্যক্ষ অকিঞ্চন দাস ব্রহ্মচারীর সভাপতিত্বে ধর্মসভা দুর্গাবাড়ী মন্দিরের সম্পাদক শংকর সাহার পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মোঃ হুমায়ুন কবীর, কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ মাহামুদুল ইসলাম, মহানগর পুজা পরিষদের সভাপতি এডভোকেট তপন দে, সাধারণ সম্পাদক উত্তম চক্রবর্ত্তী রকেট ও ইসকন এর ভক্তবৃন্দ।

অপরদিকে বিকেল সাড়ে ৩ টায় গন্ধবনিক সম্প্রদায় বড় বাজার পশ্চিম মাথা থেকে রথ টান দিয়ে কিছু দূর নিয়ে যায়। রথ টানে অংশ নেন সম্প্রদায়ের সভাপতি অরুন কুমার বনিক , সাধারণ সম্পাদক অশোক কুমার বনিক, ননী বনিক, রানা বনিক, শ্যামল বনিক, বাদল বনিক, সুমন বনিক, সহ অনেকে। পরবর্তী শুক্রবার ওল্টো রথ টান পর্যন্ত ৯ দিন রঘুনাথ জিউর আখড়ায় ভোগ বিতরণ হবে। সবাই আমন্ত্রিত। আজ শুক্রবার প্রথম ভোগ প্রদান করবেন যঁশোমাধব ভান্ডার।