| |

নান্দাইলে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে মারামারি নিহত ১ ॥ আহত ৮ ও আটক ৭

নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার দেওয়ানগঞ্জ বাজারের আধিপত্য নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে সংর্ঘের ঘটনায় রোববার (২৫ আগস্ট) সাইদুল ইসলাম নামে এক যুবক নিহত ও আটজন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় নান্দাইল মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতজনকে আটক করেছে। স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার খারুয়া ইউনিয়নের বিরাশি গ্রামের মুক্তুল মল্লিক এবং মহেষকুড়া গ্রামের মৃত ইয়াজদর সরকার বাড়ির সাথে দেওয়ানগঞ্জ বাজারের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সৃষ্ট গোলযোগে এই খুনাখুনির ঘটনা ঘটে। অনুসন্ধানে জানাগেছে, গত এক সপ্তাহ পূর্বে সাইদুল ইসলাম একটি চায়ের দোকানে বসে রাতের বেলায় চা পান করছিল। এসময় মুক্তুল মল্লিকের ছেলে বজলু মিয়া সাইদুলের মুখে টর্চ লাইটের আলো মারে। এতে সাইদুল ক্ষিপ্ত হয়ে তার দিকে চা ছুড়ে দেয়। এই ঘটনায় দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বিষয়টি আলোচনার মাধ্যমে আপোষের কথা থাকলেও রোববার ( ২৫ আগস্ট) মুক্তুল মল্লিকের পক্ষ দেওয়ানগঞ্জ বাজারে এসে হঠাৎ করে প্রতিপক্ষের উপর হামলা চালায়। এতে করে হামলায় মহেষকুড়া গ্রামের এজাহার মিয়ার পুত্র সাইদুল (৩৫) প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে মারাত্মক আহত হলে তাকে হোসেনপুর উপজেলা হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। উক্ত হামলায় মহেষকুড়া গ্রামের পাভেল, সনজু, হিমেল, হানিফ, জুনাইদ সহ আটজন আহত হয়েছে। এদের মাঝে পাভেল (৩০) এর একটি হাত কেটে ফেলেছে প্রতিপক্ষরা। তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নান্দাইল মডেল থানা পুলিশ খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন এবং এই খুনের সাথে জড়িত সন্দেহে সাত জনকে আটক করেছে বলে অফিসার ইনচার্জ মনসুর আহম্মদ নিশ্চিত করেছেন। নিহত সাইদুল ইসলামের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ রিপোর্ট পাঠানো পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। বর্তমানে ব্যবসা প্রসিদ্ধ দেওয়ানগঞ্জ বাজারে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। সমস্ত ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছে। যেকোন সময় আরও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। উল্লেখ্য নান্দাইল উপজেলায় পরপর একাধারে গত তিনদিনে তিনটি খুনের ঘটনা ঘটেছে যথাক্রমে সৎ ছেলের হাতে মা এবং গরু কলা গাছ খাওয়ায় এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা।