| |

পিবিআই, ময়মনসিংহ কর্তৃক দীর্ঘ ১ বছর ৮ মাস পর অপহৃত শিশু হৃদয় মিয়া উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার ঃ পিবিআই জামালপুরের অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার ও পিবিআই ময়মনসিংহের অতিরিক্ত দায়িত প্রাপ্ত বিশেষ পুলিশ সুপার সীমা রাণী সরকার এর দিক নির্দেশনায় পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) মোঃ আবুল কাশেম, পিপিএম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স নিয়ে তারাকান্দা থানার পশ্চিম তালদিঘী সাকিনস্থ সদ্ধিগ্ধ গ্রেফতারকৃত আসামী আনারুল (২০), পিতা-হাফেজ উদ্দিন এর বাড়ী হইতে ১১ বছরের অপহৃত শিশু মোঃ হৃদয় মিয়াকে গতকাল ২৫ ডিসেম্বর বেলা পোনে বারটার দিকে উদ্ধার করে।
অপহৃত শিশু হৃদয় মিয়া ২৮/০৩/১৮ খ্রিঃ তার নিজ বাড়ী দূর্গাপুর থানাধীন শুকনাকুড়ি গ্রাম হইতে নিখোঁজ হয়। অপহৃতের পিতা বাদী মোঃ শহিদ মিয়া (৪০) বিজ্ঞ আদালতে গত ১৫/০৫/১৮ খ্রিঃ মামলা দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত দূর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জকে নিয়মিত মামলা রুজুর নির্দেশ প্রদান করিলে দূর্গাপুর থানায় মামলা নং-১৩, তাং-১৮/০৬/১৮ খ্রিঃ, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/২০০৩) এর ৭/৩০ ধারা রুজু হয়।
থানা পুলিশ দীর্ঘ ১ বছর ৩ মাস মামলাটি তদন্ত করে বিজ্ঞ আদালতে চূড়ান্ত রিপোর্ট তথ্যগত ভূল নং-৩১, তাং-০৫/০৯/১৯ খ্রিঃ দাখিল করে।
অপহৃতের পিতা বাদী মোঃ শহিদ মিয়া (৪০) থানা পুলিশের তদন্তে সন্তুষ্ট না হইয়া নারাজীর আবেদন করিলে বিজ্ঞ আদালত মামলাটি অধিকতর তদন্তেরজন্য পিবিআই ময়মনসিংহকে নির্দেশ প্রদান করেন। পিবিআই ময়মনসিংহ ইংরেজী ০১/১১/১৯ তারিখ মামলাটি প্রাপ্তির পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আবুল কাশেম, পিপিএম ০১ জন সন্ধিগ্ধ আসামী আনারুল (২০), পিতা-হাফেজ উদ্দিন, সাং-তালদিঘী পশ্চিমপাড়া, থানা-তারাকান্দা, জেলা-ময়মনসিংহকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করিলে খুব স্বল্প সময়ের মধ্যে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গ্রেফতারকৃত আসামী আনারুলের বাড়ী হইতে দীর্ঘ দিনের অপহৃত ভিকটিম হৃদয় মিয়াকে উদ্ধার করিতে সক্ষম হয়। মামলার তদন্ত অব্যাহত আছে।