| |

গফরগাঁওয়ে গো-মড়ক, কৃষকরা উগ্নিন্ন পাচঁ দিনে ২০টি গরু মারা গেছে

গফরগাঁও প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার পাচঁবাগ ইউনিয়নের তারাটিয়া ও নলছিড়া গ্রামে গোমোড়ক দেখা দিয়েছে। কৃষকদের পালিত গরু বিনা চিকিৎসায় মরে যাওয়া স্থানীয় কৃষকরা উগ্নিন্ন হয়ে পড়েছে। জানা যায়, উপজেলার তারাটিয়া ও নলছিড়া গ্রামের মারাতœকভাবে গোমোড়ক দেখা কৃষকরা চিন্তিত। নতুন বছরের গত ৫দিনের ব্যবধানে ঐ গ্রামের কৃষকের ২০টি গরু মারা গেছে বলে জানা গেছে। কি কারনে কি রোগে এত গুলি গরু মারা গেল এ বিযয়ে উপজেলা প্রাণী সস্পদ বিভাগের কোনো মাথা ব্যাথা নেই। তারা নাক ডেকে ঘুমানো এবং প্রাইভেট চিকিৎসায় ব্যস্ত থাকায় কৃষকের গরু মারা ঘটনায় কোন খবরই রাখে না। এত গুলি গরু মারা যাওয়া এলাকার কৃষকরা উন্দিগ্ন হয়ে পড়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এ প্রতিনিধিকে মোবাইলে ঐ ইউনিয়নের সমাজ সেবক ফজলুল হক জানান, তারাটিয়া গ্রামের কৃষক মহর উদ্দিনের ২টি ষাড় গরু,মোখলেছুর রহমানের ২টি, নলছিড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ২টি বকনা গরু ও সিরাজ উদ্দিনের ১টি গাভীসহ ২০টি গরু মারা গেছে বলে তিনি জানান। স্থানীয় কৃষক সিরাজ উদ্দিন বলেন, সামনে আমাদের ইরি বোর মৌসুম পতিত জমি গুলো কিভাবে চাষ করবো। গরু মারা যাওয়া তারা বেশ চিন্তিত। পশু হাসপাতালে গবাদি পশুর ভ্যাকসিন সংকট থাকার কারনে প্রায় কৃষক গরু নিয়ে এসে চিকিৎসা না পেয়ে খালি হাতে ফিরে যায়। দুপুরের পরে এ হাসপাতালে কোন লোকই থাকে না বলে জানা গেছে। উপজেলা প্রাণী সম্পদ হাসপাতালের ভেটেনারি সার্জন ডাঃ আনিছুর রহমান বলেন, সাধারন এ শীত মৌসুমে গরু মুখে ঘা জনিত রোগের কারনে হয়তো বা গরু গুলো মারা যেতে পারে। গরু সাধারনত আষাঢ় শ্রাবন মাসে বাদলা বা খুড়া রোগে প্রকোপে আক্রান্ত হয়ে গরু মারা যায়। গরু মরে যাওয়ার বিযয়ে উপজেলা প্রাণী সস্পদ কর্মকর্তা ডাঃ জুলহাস আহমেদ বলেন, আমি তো ছুটিতে । কি কারনে কৃষকের গরু গুলো মারা গেল এ খবরতো আমাকে কেউ জানাই না। তবে খোজঁ খবর নিচ্ছি।