| |

কবি অরন্য ই. চিরানের জন্মদিন পালন

২০ ডিসেম্বর ছিল গারো জাতিসত্তার বিশিষ্ট্য কবি ও গবেষক অরন্য ই. চিরানের ৪৫ তম জন্মদিন। তিনি ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার গারো পাহাড় পাদদেশ অবস্থিত নিতাই বিধৌত দিঘলবাগ গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। শীতের ¯িœগ্ধতায় মুগ্ধ কবির মানসপটে সবসময় প্রকৃতির জয়গান, দেশ মাতৃকার প্রতি অনুরাগ, প্রেম বিরহ, আদিবাসী সমাজ-সংস্কৃতির প্রতি অগাধ ভালবাসা তাঁর কবিতায় প্রাণ সঞ্চার করে। অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী এ কবি সকল মানুষকে সমানভাবে ভালবাসেন। তিনি সবসময় মানুষের সাথে ভাল সম্পর্ক গড়ে তোলায় বিশ্বাসী। এই আবেগী কবি বিভিন্ন সময় নানান বিষয়ে কবিতা লিখে পাঠকের মন জয় করেছেন। এমনকি শেষ বিদায় বেলায় কবিকে কোথায় পাওয়া যাবে, সেই ঠিকানাও তিনি পাঠক সমাজকে দিয়ে গেছেন তাঁর “কোথায় পাবে আমাকে” কবিতায়। আশান্বিত করে সেখানে তিনি বলেছেন “যদি কোন হৈমন্তি সন্ধায় নবান্ন পিঠার সুগন্ধ আসে/অথবা আচিক ওয়ানগালার বাজনা শোনা যায় দুরে/ রাতের অন্ধকারে ভৌলা দৌড়ের মশাল দেখা যায়/…তবে মনে রেখো বন্ধু আমি সেখানেই আছি, তোমার পাশে।” প্রেম বিরহ বেদনার পাশাপাশি তাঁর কবিতায় দেশ ও বঙ্গবন্ধুর প্রতি অকৃত্রিম শ্রদ্ধা উপজীব্য হয়ে উঠেছে। তাইতো দেখি তাঁর “যার ডাকে এসেছে স্বাধীনতা” কবিতার একটি চরণে লিখেছেন- “শেষে শিমুল শোভিত বসন্তের দিনে তেজস্বী রক্তিম সূর্যের ক্রোধ নেমে এসেছিলো/ দেশের সেই ক্রান্তিলগ্নে তুমি শক্ত করে হাল ধরেছিলে,/ নির্লিপ্ততা কখনও তোমাকে ছুঁতে পারেনি সেদিন/ ৭ই মার্চের সেই তেজোদীপ্ত ভাষণে স্বাধীনতার লাল সূর্য দেখতে পেয়েছিল/ রেসকোর্স ময়দানে স্বাধীনতাকামী কোটি কোটি পরাধীন মানুষ।” যেীবনদীপ্ত বয়সে ২৭ তম জন্মদিনকে ঘিরে ভালবাসার মানুষের না আসার আশংকায় বাকরুদ্ধ হয়ে তিনি তাঁর “হয়তো তুমি আর আসবে না” কবিতায় লিখেছেন “কত রাত্রিদিনে, কত শ্রাবণে বয়ে গেল পাহাড়ী ঝণাধারা/ সাথে পেরিয়ে গেল ২৭টি বসন্ত আর শীতের সকাল/আজ খেঁজুর গাছ রস উপহার দিয়ে জানিয়ে গেল/হ্যাপি বার্থ ডে টু ইউ….বন্ধুবান্ধব এবং প্রকৃতির সবাই আজ এসেছিল উপহার নিয়ে/শীতের চাঁদর মুড়ি দিয়ে শুধু তোমার প্রতীক্ষা করছি/ ভাবছি হয়তো তুমি আর আসবে না/ আমার ২৭তম জন্মদিনে।” কবির জন্মদিনে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ, বন্ধুবান্ধব ও শুভাকাংখীরা শুভেচ্ছা পাঠিয়েছেন। তাঁদের প্রত্যাশা কবি যেন হাজার বছর বেঁচে থাকেন সকলের মাঝে। তিনি আজ সকলের ভালবাসায় সিক্ত। শুভেচ্ছা পাঠানো বন্ধুবান্ধব ও শুভাকাংখীদের তিনি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।