| |

গফরগাঁওয়ে সস্ত্রাসীদের দায়ের কোপে আহত বৃদ্ধা মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে

গফরগাঁও প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার কন্যামন্ডল গ্রামে সস্ত্রাসীদের দায়ের কোপে এক বৃদ্ধা আহত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। জানা যায়, উপজেলার পাগলা থানার দত্তেরবাজার ইউনিয়নের কন্যামন্ডল গ্রামে হারুন অর রশীদ ও হাফিজ উদ্দিনের মধ্যে বাড়ির পাশেই একটি পুকুরের সাইড নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে। এ নিয়ে গ্রাম্য মাতাব্বররা বেশ কয়েকবার দেনদরবার বসলে হাফিজ উদ্দিনের লোকজন দরবারে উপস্থিত হয়নি। পরে মাতাব্বররা পুকুরের সাইড ভোগ দখল করার জন্য হারুন অর রশীদকে সাইড মেপে সীমানা বুঝিয়ে দেন। এর মধ্যে গত শনিবার ৯ জানুয়ারী বিকাল তিনটার দিকে পুকুরের সাইড দখল দেবে না বলে হাফিজ উদ্দিনের বাড়ির লোকজন হারুন অর রশীদ(৬৫)কে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে কোন কিছু বোঝার আগেই দা লাঠি ডেগার নিয়ে হাফিজ উদ্দিনের নিদের্শে সস্ত্রাসী বিল্লাল, শারফুল, লিমন প্রথমে রশীদের মাথায় দা দিয়ে কোপ দেয় পরে অন্যরা লাঠি দিয়ে এলোপাথারি পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয় তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্য নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। ময়মনসিংহ হাসপাতাল থেকে বৃদ্ধা হারুনকে উন্নত চিকিৎসা জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ঢাকা মেডিকেলে আহতর চিকিৎসা ও মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এ বিযয়ে পাগলা থানার ওসি চান মিয়া বলেন, মারামারি ঘটনায় এখনোও পযর্ন্ত কোন অভিযোগ পাইনি। পাইলে ব্যবস্থা নেব।