| |

বিদ্যাময়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক মিলাদ ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শহরের বিদ্যাময়ী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক মিলাদ মাহফিল ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান গতকাল সোমবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। মিলাদ ও পুরস্কার বিতরণী প্রাক্কালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা হয়। বিদ্যাময়ী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা নাছিমা আক্তারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ময়মনসিংহ টিচার্স ট্রেনিং (মহিলা) কলেজের অধ্যক্ষ ফেরদৌস মহল মনসুরা বেগম। বিশেষ অতিথি ছিলেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সাবেক উচ পরিচালক মার্জিয়া খাতুন, মুসলিম গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ডঃ শাহাব উদ্দিন আহম্মেদ, আনন্দ মোহন বিশ্বদ্যিালয় কলেেেজর রয়াসন বিভাগের অধ্যাপক রওশন আলম, টিচার্স ট্রেনিং কলেজের অধ্যাপিকা জেসমিন ফেরদৌস। বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মনসুরুল হক তানভীরের পরিচালনায় অন্যান্যে মাঝে বক্তব্য রাখেন মিলাদ ও পুরস্কার বিতরণী কমিটির সম্পাদক মাসকুড়া খাতুন ও যুগ্ন সম্পাদক মঞ্জুরুল হক। সভার প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, প্রত্যেককে লেখাপড়ার প্রতি আরো মনোযোগী হয়ে শিক্ষিত হতে হবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। যাতে মৃত্যুর আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে মুক্তি দেন এবং আমরা শান্তিতে থাকতে পারি। মনে রাখতে হবে পৃথিবীতে যেমন কম্পিউটার সব তথ্য সংরক্ষণ করেন তেমনি আল্লাহ তায়ালার কাছেও মানুষের ভাল মন্দ সংরক্ষণ ও বিচার করার মত অনেক ভিডিও রয়েছে। তিনি মন্দকে দুরে ঠেলে ভাল কাজটি করতে সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি ধর্মের আলোকে সভায় সভাপতি ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা নাছিমা আক্তার শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, প্রত্যেক মানুষের জন্মের পর থেকেই সময় কমে আসছে। তাই সময় সম্পর্কে সচেতন হয়ে তা কাজে লাগাতে হবে। এ সময় তিনি কোরআন হাদিসের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, প্রত্যেক নরনারী মুসলমানের জ্ঞান অর্জন করা ফরজ এবং তা হলো কোরআন শিক্ষা ও তার অর্থ বুঝে ব্যক্তি, পারিবারিক, সামাজিক জীবনসহ মৃত্যুর পরবর্তী সময়ের জন্য পুজি করা। বিদ্যাময়ী স্কুলকে একটি আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে প্রধান শিক্ষিকা সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। পরে মিলাদ উপলক্ষে আয়োজিত কেরাত, আবৃতি, হামদ নাথ বিষয়ে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মাঝে অতিথিবৃন্দ পুরস্কার বিতরণ করেন। সবশেষে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিচালনায় ধর্মীয় ভাবগাম্ভর্যপুণভাবে মিলাদ অনুষ্ঠিত হয়। মিলাদ শেষে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাদেক বিনতে সায়েদা দোয়া পরিচালনা করেন।