| |

জামালপুরের নরুন্দি রেল স্টেশন বন্ধের প্রতিবাদে ৪ ঘন্টা ট্রেন আবরোধ॥যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ

জামালপুর প্রতিনিধি॥লোকবলের অভাবে বাংলাদেশ রেলওয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জামালপুর জেলার নরুন্দি রেলওয়ে স্টেশনের সকল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষনা করায় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রেল লাইনের উপর গাছের গুঁড়ি ফেলে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন। গত ২২জানুয়ারী শুক্রবার দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিক্ষব্ধ জনতা নরুন্দি রেল স্টেশনে ঢাকা-জামালপুর।ঢাকা-জগনাথগঞ্জ রেল পথে চলাচলকারী সকল আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রা বিরতি দাবি করেন। স্থানীয় রেল সুত্রে জানা যায়, লোকবলের অভাবে গত বৃহস্পতিবার থেকে নরুন্দি রেলস্টেশনের সকল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষনা করে রেল কর্তৃপক্ষ। রেল স্টেশনটি হঠাৎ বন্ধ করে দেয়ায় এলাকাবাসী বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। তার প্রতিবাদে শত শত এলাকাবাসী দুপুর ২টায় নরুন্দি রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় রেল লাইনের ওপর গাছের গুঁড়ি ফেলে বিক্ষোভ শুরু করে। এসময় ঢাকা থেকে তারাকান্দিগামী আন্তঃনগর অগ্নিবীণা এক্সপ্রেস ট্রেন ও দেওয়ানগঞ্জ থেকে ঢাকাগামী কমিউটার এক্সপ্রেস ট্রেনটি নরুন্দি স্টেশনে এবং জামালপুর থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনটি জামালপুর স্টেশনে ও ময়মনসিংহ থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্বগামী ধলেশ্বরী এক্সপ্রেস ট্রেনটি ময়মনসিংহের বিদ্যাগঞ্জ স্টেশনে আটকা পরে। এসময় ট্রেনের যাত্রী নারী শিশুসহ শত শত যাত্রী চরম দুর্ভোগের শিকার হন।
জামালপুর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো.তারেক বলেন,লোকবলের অভাবে নরুন্দি স্টেশনটি বন্ধ করে দেয়ায় এলাকাবাসী বিক্ষোভ করেছে। পরিস্থিতি সমাধানের জন্য স্থানীয় প্রশাসনের সাথে বিক্ষোভকারীদের আলোচনা চলছে বলে তিনি জানান।
স্থানীয় এলাকাবাসী মো.খলিলুর রহমান জানান, প্রতিটি আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রা বিরতিসহ বন্ধ করে দেয়া স্টেশনটি পুনরায় চালু করার দাবিতেই আমাদের এ আন্দোলন।
জামালপুর রেলওয়ে থানার ওসি মো. আলাউদ্দিন চৌধুরী বলেন, আন্দোলনকারীদের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে দীর্ঘ চার ঘন্টা পর সন্ধ্যা ৬টায় অবশেষে ট্রেন চলাচল পুনরায় শুরু করা হয়। যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে অবরোধ চলাকালে নরুন্দি রেল স্টেশন এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
জামালপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুল ছালাম জানান, অবরোধকারীদের দাবি অনুযায়ী স্টেশনটিতে আগের মত সকল কর্মকান্ড পরিচালনার আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন। তবে এই স্টেশনটিতে সকল আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রা বিরতির বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনার প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।