| |

শাপলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের পক্ষ থেকে অধ্যক্ষ ডাঃ শংকর নারায়ন দাস কে অভিনন্দন

ফুলবাড়ীয়া ব্যুরো অফিস : ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের নতুন অধ্যক্ষ মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা: শংকর নারায়ন দাস কে অভিনন্দন জানিয়েছেন তার বাবার উৎসর্গকৃত জমির উপর প্রতিষ্ঠিত প্রিয় প্রতিষ্ঠান, দক্ষিণাঞ্চলে নারী শিক্ষার অন্যতম বিদ্যাপীঠ শাপলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের গভর্ণিং বডির সম্মানিত কর্মকর্তা, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থীবৃন্দ। কর্তৃপক্ষ অভিনন্দন জানাতে অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা: শংকর নারায়ন দাস এর গ্রামের বাড়ী নাওগাঁও তার গর্বিত মায়ের কাছে ফুলেল শুভেচ্ছা তুলে দেন। গভর্ণিং বডির কর্মকর্তারা মনে করেন অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা: শংকর নারায়ন দাস এর পিতা স্বর্গীয় ডা: অনিল কুমার দাস লক্ষ লক্ষ টাকার মায়া ছেড়ে ৭০ শতাংশ জমি নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিঃস্বার্থভাবে দান করেন। গর্বিত সন্তান ডা: শংকর নারায়ন দাস এর বাবার ঋণের কথা কেশরগঞ্জবাসী কোন দিন ভুলবে না। অত্র বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তার বাবার অবদান অনস্বীকার্য।
গভর্ণিং বডির সভাপতি মোঃ নাজিম হিকমত এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ডা: শংকর নারায়ন দাস আমার প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা জীবনের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বন্ধু ও সহপাঠী। অত্র বিদ্যালয়টি আমার নের্তৃত্বে এবং স্থানীয়দের সহযোগিতায় স্কুল থেকে কলেজে রূপান্তরিত করেছেন। যেহেতু এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তাদের যথেষ্ঠ অবদান রয়েছে সেহেতু পদোন্নতি সুসংবাদে অত্র প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি, শিক্ষক-শিক্ষিকা, ছাত্রীবৃন্দ অত্যন্ত গর্বিত। গর্বিত এ সন্তানকে যিনি গর্বে ধারনসহ লালন-পালন করেছেন তাকে জানাই হাজার ছালাম এবং ফুলেল শুভেচ্ছা। তাই তার গর্বিত মা মুকুল রাণী কে ফুলেল শুভেচ্ছা জানাতে আমরা ডা: শংকর নারায়ন দাস এর গ্রামের বাড়ীতে ছুটে এসেছি এবং তার মায়ের মাধ্যমে অত্র এলাকার কৃতি সন্তান অধ্যক্ষ ডা: শংকর নারায়ন দাস কে আন্তরিক অভিনন্দন।
মুকুল রাণী আগত সকলকে প্রাণভরে আর্শিবাদ করেন ও সকলের সুস্থতা কামনা করেন।
শাপলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ শামছুল আলম বলেন, অধ্যক্ষ ডা: শংকর নারায়ন দাস আমাদের গর্ব, আমাদের অহংকার। তিনি ফুলবাড়ীয়ার উজ্জল নক্ষত্র। আমরা তাঁর সুস্থতা জীবন কামনা প্রত্যাশা করি।