| |

মুক্তাগাছায় নামাজের সময় মুক্তিযোদ্ধা জামে মসজিদে জেএমবি সদস্যের আগুন

স্টাফ রিপোর্টার : মুক্তাগাছা শহরের চৌরঙ্গি মোড় এলাকায় গতকাল মঙ্গলবার মুক্তিযোদ্ধা শহীদ স্মৃতি জামে মসজিদে জোহরের নামাজের সময় জামে মসজিদের সিঁড়িতে রাখা মোটর সাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয় জেএমবির এক সদস্য। এতে ইমামের ব্যবহৃত মোটর সাইকেলটি পুড়ে যায়। এ সময় আতংক ছড়িয়ে পড়ে মুসল্লিদের মাঝে। এ ঘটনায় মসজিদের ইমাাম মাওলানা মোখলেছুর রহমান বাদি হয়ে মুক্তাগাছা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
মুক্তিযোদ্ধা শহীদ স্মৃতি জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মোখলেছুর রহমান বলেন, দুপুর সোয় ১টায় পাঞ্জাবী, টুপি ও লুঙ্গি পড়া ২৫ থেকে ২৬ বছরে এক যুবক ইমামের কক্ষে গিয়ে বলেন আমি আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসুদের আপন ভাতিজা, আমার বাড়ি ময়মনসিংহ শহরের খাগঢহর এলাকায়। আমি এসেছি একটি মিলাদ পড়াতে ও এ এলাকায় একটি খানকা শরিফ বানানোর উদ্দেশ্যে। এর পর ওই যুবক মসজিদের ভেতরে বসেই মোবাইল ফোন টিপাটিপি করে। দুপুর দেড়টায় জোহরের ফরজ নামাজ চলাকালীন সময় হঠাৎ দুতলায় প্রচন্ড আঘাতের একটি আওয়াজ শুনা যায়। তাড়াতাড়ি ফরজ নামাজ পড়া শেষে মুসল্লিরা দেখতে পান মসজিদের সিঁড়ি নিচে বৈদ্যুতিক সুইচের কাছে ইমামের ব্যবহৃত মোটর সাইকেলে ধাও ধাও করে আগুন জ্বলছে। এ সময় মসজিদের ভেতরে থাকা মুসল্লিদের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। তারা দিগদ্বিক ছুটাছুটি করতে থাকেন।
নামে প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন স্থানীয় এলাকার বাসিন্দারা বলেন, টুপি ও পাঞ্জাবী পড়া ওই যুবক আগুন জ্বলা অবস্থায় বাড়ির ভেতর দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়।
মুক্তাগাছা থানার ওসি আবু মোঃ ফজলুল করিম সাংবাদিকদের বলেন,মসজিদের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়েছি । ঘটনাটি যাচাই বাছাই করে দেখা হচ্ছে আসলে ওই যুবক জেএমবির সদস্যে কিনা। এছাড়া অন্য কোন ঘটনা এর মাঝে রয়েছে কিনা।