| |

চাঁদাবাজীর সাজানো মামলা থেকে খালাস পেলেন সাংবাদিক খোরশেদ আলম

ঝিনাইগাতী প্রতিনিধি : চাঁদাবাজীর সাজানো মামলা থেকে বেকসুর খালাস পেলেন শেরপুরের ঝিনাইগাতী প্রেস ক্লাবের সভাপতি খোরশেদ আলম। রাষ্ট্রপক্ষের অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৩ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা যুগ্ম দায়রা জজ (প্রথম) আদালতের বিচারক মোহাম্মদ হারুন-অর রশিদ তাকে খালাসের নির্দেশ দেন। জানা যায়, ২০১৩ সালে সংবাদ প্রকাশের ঘটনার জের ধরে ঝিনাইগাতী পুলিশ প্রশাসন ও কতিপয় রাজনীতিকের ষড়যন্ত্রে স্থানীয় সাংবাদিকদের মধ্যে দ্বন্দের সৃষ্টি হয়। ওই অবস্থায় স্থানীয় তথাকথিত এক সংবাদ কর্মীকে বাদী করে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগে সাংবাদিক খোরশেদ আলমের বিরুদ্ধে থানায় মামলাটি দায়ের করে। পরবর্তীতে থানা পুলিশ সঠিক তদন্ত না করে আদালতে খোরশেদ আলমের বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করে। ওই মামলায় সংবাদদাতা বাদী ও ৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে রাষ্ট্রপক্ষ আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণে ব্যর্থ হওয়ায় আদালত তাকে বেকসুর খালাসের আদেশ দেন। মামলাটি রাষ্ট্রপক্ষে এপিপি অরুণ কুমার সিংহ রায় এবং আসামীপক্ষে জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রফিকুল ইসলাম আধার ও এডভোকেট আলমগীর কিবরিয়া কামরুল পরিচালনা করেন। এদিকে চাঁদাবাজীর সাজানো মামলায় খালাস পাওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন শেরপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলা, জেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি মোঃ মেরাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আদিল মাহমুদ উজ্জল ও ঝিনাইগাতী প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী টিটু।