| |

কেন্দুয়ায় মুক্তিযোদ্ধাকে কুপিয়ে জখম

সৌমিন খেলন : নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার দলপা ইউনিয়নে বিচারক মুক্তিযোদ্ধা লতিফ আহমেদ খানকে (৬০) কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) সকালের দিকে ইউনিয়নটির জল্লীগ্রামে এঘটনা ঘটে। পরে আহতকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়। তিনি (লতিফ আহমেদ) সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ছিলেন বলে জানিয়েছেন তার স্ত্রী কাজী তাইয়েবা তাসনীম। দুপুরে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে বিচারক লতিফ আহমেদ খান স্বদেশ সংবাদে অভিযোগ করেন, বড়ভাই লুৎফে আহমেদ খান ওয়াসীম’র ছেলে ভাতিজা ফয়সাল রামদা দিয়ে কুপিয়ে তাকে জখম করেছেন। বিচারকের স্ত্রী কাজী তাইয়েবা তাসনীম ঘটনার বিশ্লেষন দিতে গিয়ে স্বদেশ সংবাদকে বলেন, ফয়সাল আজ সকালে হঠাৎ নিজের পুকুরের পাড় কাটার অভিযোগ এনে তার চাচাকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ শুরু করেন। প্রতিত্তরে গালমন্দের প্রতিবাদ জানান বিচারক লতিফ আহমেদ। পরে ফয়সাল একপর্যায়ে রামদা এনে তার চাচাকে হাত ও পায়ে কুপিয়ে জখম করে দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। তিনি (তাসনীম) আরও জানান, বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করা হবে। কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অভিরঞ্জন দেব ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে স্বদেশ সংবাদকে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে রামদা উদ্ধার করা হয়েছে। মামলা পক্রিয়াধীন। অভিযুক্তকে আটকের চেষ্টা চলছে।