| |

বিশ্বের বড়-বড় শহরের মত ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহর গড়ে তোলা হবে-সৈয়দ আশরাফ

রঞ্জন মজুমদার শিবু ঃ জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, আওয়ামীলীগের জাতীয় কাউন্সিল আপাতত পিছানোর সম্ভাবনা নেই। যদি ইউনিয়ন পরিষদের ২য় ও ৩য় ধাপের নির্বাচনের তারিখের দিনে কাউন্সিল পড়ে তাহলে জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে পরবর্তী পুনঃ তারিখের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তা না হলে বর্তমান তারিখেই আওয়ামীলীগের জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। মন্ত্রী শুক্রবার বিকেলে ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় সহ অন্যান্য বিভাগীয় কার্যালয়ের উপযুক্ত স্থান নির্বাচনের জন্য সরেজমিনে ভূমি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় ও অন্যান্য বিভাগীয় কার্যালয়ের সম্ভাব্যস্থান ব্রহ্মপুত্র নদের উত্তর পাড়ে হবে বলে অনেকটা নিশ্চিত করে তিনি আরো বলেন, বিশ্বের অন্যান্য বড় বড় শহরের মত ময়মনসিংহ শহরের মাঝ দিয়ে প্রবাহিত হবে ব্রহ্মপুত্র নদ। এর দুই ধারে গড়ে উঠবে শহর। ময়মনসিংহ বিভাগের উন্নয়নের জন্য যা যা দরকার সবকিছু করা হবে। শহরের রাস্তাঘাট প্রশস্ত করা হবে। এতে দুয়েকটা ঘরবাড়ি ভাঙ্গা পড়লেও বৃহত্তর স্বার্থে মেনে নিতে হবে। বর্তমানে নদটির এক ধারে শহর প্রতিষ্ঠিত হলেও শহরের বর্ধিত নতুন অংশ গড়ে উঠবে নদের উত্তর পাড়ে। সেখানে ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় ও অন্যান্য বিভাগীয় কার্যালয় গড়ে তোলা হবে। পাশাপাশি গড়ে তোলা হবে নতুন নতুন স্কুল কলেজ ও খেলার মাঠ।
পরে জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এমপি, বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশণ এরশাদ, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি, ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান, জাতীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট মোসলেম উদ্দিন, জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ আমান উল্লাহ, জাতীয় সংসদ সদস্য শরিফ আহম্মেদ, জাতীয় সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন খান তুহিন, জাতীয় সংসদ সদস্য সালাহ উদ্দিন আহম্মেদ মুক্তি, জাতীয় সংসদ সদস্য ফকরুল ইমাম, ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু সহ সচিববৃন্দ ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে কাচারি ঘাটের বিপরীতে চর জেলখানা এবং শম্ভুগঞ্জের চায়না মোড়সহ বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় ও অন্যান্য বিভাগীয় কার্যালয়ের বেশ কয়েকটি সম্ভাব্যস্থান পরিদর্শন করেন।
এসময় যুব ও ক্রীড়া উপ-মন্ত্রী আরিফ খান জয় এমপি, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মূখ্যসচিব আবুল কালাম আজাদ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. কামাল আবুল নাসের চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগম, ভূমি মন্ত্রনালয়ের সচিব মেজবাহ উল আলম, গৃহায়ণ ও গণপুর্ত মন্ত্রনালয়ের সচিব মইন উদ্দিন আব্দুল্লাহ, ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মুস্তাকিম বিল্লাহ ফারুকী, অতিঃ পুলিশ সুপার সৈয়দ হারুন অর রশিদ উপস্থিত ছিলেন।