| |

মজুরি বৈষম্যের শিকার নারীরা

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল উপজেলার নারী শ্রমিকরা মজুরি বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন। পুরুষের চেয়ে তাদের কম মজুরি দেওয়া হচ্ছে, বলছেন কেউ কেউ।
আমাদের উপজেলা সংবাদকর্মীর সঙ্গে কথা হয় কয়েক জন নারী শ্রমিকের। উপজেলার মুখ্যগাংগাইর গ্রামের নারী শ্রমিক হনুফা বেগম বলেন, “আমরা সব জায়গায় অবহেলিত। পুরুষের মতো কাজ করেও টাকা কম পাই। “একই অভিযোগ করেন নারী শ্রমিক জৈগুন নেসা, হনুফা বেগমসহ বেশ কয়েকজন জানান, প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ইটের ভাটাতে মাটি কাটার কাজ করেন তারা। একই কাজ পুরুষরা করে দৈনিক ৩০০ টাকা আর নারীরা ২০০ টাকা পান। রতনবরিষ গ্রামের নারী শ্রমিক খাদিজা বেগম বেগম বলেন, “আমরা সব সময় কম টাকা পাই।” তিনি বলেন, ফসলের মাঠে কাজ করে একজন পুরুষ পায় ৪০০ টাকা আর নারীরা পায় ৩৫০ টাকা। “শ্রম তো কোন অংশেই কম দেই না। মজুরি কম পাবো কেন?” যোগালির কাজ করেন মোছা. বেগম। তিনি বলেন, “এই কাজে আমরা পাই ২০০ টাকা। পুরুষরা পায় ৩০০ টাকা।
“কিন্তু কিছু বলাও যায় না। প্রতিবাদ করলে কাজ পাবো না।” উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়াম্যান কানিজ ফাতেমা জানান, নারীরা এখনও অবহেলিত। তিনি বলেন, কোনো কাজ নিয়ে সরকারি অফিসে গেলে নারী সদস্যের আগে পুরুষ সদস্যদের প্রাধান্য দেওয়া হয়। “তবুও মনোবল ঠিক রেখে নারীদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি।” নারী পুরুষের এই ভেদাভেদ একদিন থাকবে না বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন। এবিষয়ে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাছিমা খাতুন বলেন, “দেশের উন্নয়নে বর্তমানে নারী-পুরুষ সমান ভূমিকা রাখছে। নারীদের অবহেলায় ফেলে রাখার দিন শেষ।”
নারীদের অধিকার নারীদেরই আদায় করে নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।