| |

ধর্মপাশা উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে ৩৪টি গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগের‘উদ্বোধন ২০১৮ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হবে’ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ

ধর্মপাশা প্রতিনিধি : বাংলাদেশ সরকারের বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, এ দেশ আগের তুলনায় উন্নয়নের দিকে এখন দূর এগিয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ শুরু করায় নারীরা এখন আর পিছিয়ে নেই। এদেশের নারীরা এখন পুলিশ, সেনা বাহিনী, নৌ বাহিনী ও বিমান বাহিনীতে কাজ করছে। ২০২১ সালের মধ্যে আমদের বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। সারা দেশে বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানের জন্য সরকার গুরুত্বে সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। আগামী ২০১৮সালের মধ্যে এ দেশের প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হবে।’
গতকাল শনিবার দুপুরে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার সদর ইউনিয়নের হলিদাকান্দা গ্রামের মাঠে নেত্রকোনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অধীনে এ উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ৩৪টি গ্রামের ৫হাজার ৭টি পরিবারের মধ্যে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে এ উপজেলার মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে ‘ধর্মপাশায় পল্লী বিদ্যুতের একটি জোনাল অফিস ও মধ্যনগর থানায় একটি অভিযোগ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে’ বলে এলাকার মানুষজনকে আশ্বস্থ করেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনীন্দ্র চন্দ্র তালুকদারের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ মুরাদের সঞ্চালনে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতন। অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সদস্য সুনলী চন্দ্র দে, নেত্রকোনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মুজিবুর রহমান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার ইউসুফ আল আজাদ, ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এটিএম নাজিম উদ্দিন আল আজাদ, আওয়ামী লীগ নেতা সেলিম আহমেদ, আবু তাহের ,সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের মানববন্ধন বিষয়ক সম্পাদক মহি উদ্দিন আহমেদ কনিক প্রমুখ।