| |

ঝিনাইগাতী সীমান্ত থেকে অপহৃত আদিবাসীদের ৩দিনেও সন্ধ্যান মেলেনি

ঝিনাইগাতী প্রতিনিধি : শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার গজনী গ্রামের অপহৃত ৩ আদিবাসীর গত ৩দিনেও সন্ধ্যান মেলেনি। অপহৃত আদিবাসীরা হলো, ওই গ্রামের সুমিত সাংমার ছেলে রাজেস মারাক (২২), সুকীন্দ্র মারাকের ছেলে বিভাস সাংমা (২৫) ও মৃত রহেন্দ্র সাংমার ছেলে প্রভাত মারাক (৫০)। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাতে ১০/১২ জনের সাদা পোষাকধারী একটি দল বিভাস সাংমা ও প্রভাত মারাককে তোলে নিয়ে যায়। পরে ওই গ্রামের সুমিত সাংমার ছেলে রাজেস মারাককে ময়মনসিংহের ভালুকা থেকে তোলে নিয়ে যায় বলে জানা গেছে। গত ৩দিনেও ওই ৩ আদিবাসীর সন্ধ্যান পায়নি তার পরিবারের লোকজন। তবে এলাকাবাসীর ধারনা ভারতের বিচ্ছিন্নতাবাদী ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্ট অব আসাম (উলফা)’র সদস্যরা এখানে অবস্থানের সময় স্থানীয় আদিবাসী পরিবারের সদস্যদের সশস্ত্র প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদের হাতে অস্ত্র তোলে দেয়। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর উলফা আস্তানায় আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের উপর্যপুরি অভিযানে উলফা সদস্যরা গা ঢাকা দেয়। এরপর থেকে স্থানীয় প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত উলফা’র এজেন্টরা তাদের কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে। এ কারনে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা ওই ৩ আদিবাসীকে তোলে নিয়ে যেতে পারে বলে গ্রামবাসীদের ধারনা। এ ব্যাপারে বিভাস সাংমা পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় সাধারন ডায়েরী করা হয়েছে। ওসি মোঃ মিজানুর রহমান থানায় অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।