| |

৪৫ মেঃটন গম আত্মসাৎ ফুলপুরে খাদ্য গোদাম কর্মকর্তাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ফুলপুর সংবাদদাতা : নারায়নগঞ্জের সাইলো অধীক্ষকের কার্যালয় হতে ৩টি ইনভয়েসে ফুলপুর খাদ্য গোদামে প্রেরিত ৪৪.৯৭৭ মেঃটন গম আত্মসাতের অভিযোগে সাবেক খাদ্য গোদাম কর্মকর্তাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে সোমবার ফুলপুর থানায় মামলা করেছে দুদক।
মামলার বিবরণে জানা যায়, আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক ঢাকার সূচি নং-৬৮, তারিখ ৯/২/২০১২ইং মূলে নারায়নগঞ্জের সাইলো অধীক্ষকের কার্যালয় হতে ফুলপুর খাদ্য গোদামে পৌছানোর জন্য ইনভয়েস নং-২৩৫৩৮০৬ মূলে ১৪.৯৭৯ মেঃটন গম পরিবহন ঠিকাদার সেতারা এন্ড সন্স অনুকুলে, ইনভয়েস নং- ২৩৫৩৮১২ মূলে ১৪.৯৯৯ মেঃ টন গম পলাশ পরিবহনের অনুকুলে এবং ইনভয়েস নং- ২৩৫৩৮৪৮ মূলে ১৪.৯৯৯ মেঃটন গম এস ইসলাম এন্ড ব্রাদার্স-এর অনুকুলে ১৮/২/২০১২ইং তারিখে ইস্যু করা হয়। ইস্যুকৃত গম সেতারা এন্ড সন্সের পক্ষে প্রতিনিধি সাহাব উদ্দিন, পলাশ পরিবহনের প্রতিনিধি বাবুল মিয়া ও এস ইসলাম এন্ড ব্রাদার্সের পক্ষে প্রতিনিধি মুজিবুর রহমান একই তারিখে গ্রহন করেন এবং সাইলো হতে ময়মনসিংহের ফুলপুর সরকারী খাদ্য গোদামে প্রেরণ করা হয়েছে মর্মে দেখানো হয়। কিন্তু উল্লেখিত ৩টি ইনভয়েস মূলে প্রেরিত গম ফুলপুর খাদ্য গোদামের সেন্ট্রাল রেজিষ্ট্রারে বা অন্য কোন রেজিষ্ট্রারে এন্ট্রি না হলেও প্রেরিত ইনভয়েস ৩টি উক্ত কার্যালয়ে পাওয়া যায়। তাছাড়া প্রেরিত ৪৪.৯৭৭ মেট্রিক টন গম ফুলপুর গোদামে প্রাপ্ত না হওয়ার বিষয়ে খাদ্য অধিদপ্তর গঠিত তদন্ত কমিটি সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক ইস্যুকৃত গম ফুলপুর খাদ্য গোদামে পরিবহন না করে ফুলপুর এলএসডি’র ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজাউল আলম, পরিবহনকারী ৩টি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মালিক/প্রতিনিধি পরস্পর যোগসাজসে তছরুপ/গায়েবের কর্মকান্ড সংগঠিত হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের মতামত প্রদান করেন। অনুসন্ধানে ৪৪.৯৭৭ মেঃটন গম ও ৯০০ সরকারী বস্তা (যার তৎকালীন মুল্য ১২ লাখ ৬১ হাজার ৪৬১ টাকা) আত্মসাৎ করার অভিযোগ প্রাথমিক ভাবে প্রমানিত হওয়ায় দুদক প্রধান কার্যালয়ের অনুমোদন ক্রমে দুর্নীতি দমন কমিশন ময়মনসিংহের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম বাদি হয়ে সোমবার ফুলপুর খাদ্য গোদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (সাময়ীক বরখাস্তকৃত) রেজাউল আলম, নারায়নগঞ্জের সিদ্দিগঞ্জ পরিবহন ঠিকাদার সালাহ উদ্দিন (প্রোঃ পলাশ পরিবহন), জাহাঙ্গীর আলম (প্রোঃ সেতারা এন্ড সন্স) ও সিরাজুল ইসলামের (এস ইসলাম এন্ড ব্রাদার্স) বিরুদ্ধে ফুলপুর থানায় মামলা নং- ১৭(৪)১৬ দায়ের করেন।