| |

ধর্মপাশায় পাহাড়ি ঢলের পানিতে তলিয়ে গেছে আরও ১৪৮একর বোরো জমি

ধর্মপাশা প্রতিনিধি : উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানিতে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার কুদাল্লিয়া হাওরে গত শুক্রবার সকাল থেকে পানি ঢুকতে শুরু করায় ওই হাওরের ১৪৮একর বোরো জমির পাকা ও আধপাকা ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়নের গাগলাখালী ফসলরক্ষা বাঁধটি গত সোমবার সকালে ভেঙে যাওয়ায় এই হাওরে ফসলডুবির ঘটনা ঘটেছে বলে কৃষকেরা জানিয়েছেন। এ ছাড়াও ফসলরক্ষা বাঁধ ভেঙে একের পর এক হাওরে ফসলডুবির ঘটনা ঘটতে থাকায় এ নিয়ে কৃষকদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও হতাশা দেখা দিয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়নের গাগলাখালী ফসলরক্ষা বাঁধটি ভেঙে যায়। এতে করে এখানকার ছোট বড় বেশ কয়েকটি হাওরের বোরো জমির পাকা ও আধপাকা ধান পানিতে তলিয়ে যায়। ওই পানিই শুক্রবার সকাল থেকে কুদাল্লিয়া হাওরের একটি অংশ দিয়ে ঢুকতে শুরু করে। এই হাওরটিতে চলতি বোরো মৌসুমে ৪৯৪একর বোরো জমিতে ধান আবাদ করা হয়েছিল। হাওরের একদিকে পানি ঢুকতে শুরু করলেও এই অবস্থার মধ্যেই কৃষকেরা নিরুপায় হয়ে জমির পাকা ও আধপাকা ধান কাটতে শুরু করেন। গতকাল শনিবার সকাল পর্যন্ত কৃষকেরা ওই হাওরের ৩৪৬একর বোরো জমির ধান কেটে নিয়েছেন। কুদাল্লিয়া হাওরের বাকি ১৪৮একর বোরো জমির পাকা ও আধপাকা ধান পানিতে তলিয়ে গেছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শোয়েব আহমেদ বলেন, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানির চাপে ফসলরক্ষা বাঁধ ভেঙে এ উপজেলায় এখন পর্যন্ত চার হাজার ৯১৫হেক্টর বোরো জমির পাকা ও আধপাকা ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। আবহাওয়া ভালো থাকলে ও পাহাড়ি ঢলের পানির চাপ আর না বাড়লে কর্তন না হওয়া অবশিষ্ট হাওরের বোরো ফসল কৃষকেরা নিশ্চিন্ত মনে তাঁদের ঘরে তুলতে পারবেন বলে আমি আশাবাদী।