| |

জীবনযুদ্ধ শেষ হচ্ছে না নকলার সাংবাদিক ইউসুফ আলী মন্ডলের

নকলা প্রতিনিধি: যিনি প্রতিদিন সকলের খবর লিখে বেড়াতেন ভাগ্য ক্রমে আজ তিনি নিজেই খবরে পরিণত হয়েছেন। শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার দীর্ঘ ২২ বছর যাবৎ স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিক ভোরের কাগজ, সংবাদ, বাংলার বানী, বাংলাদেশ সময় পত্রিকার লেখক ছিলেন তিনি। সাংবাদিক, নকলা প্রেস ক্লাবের সম্পাদক মোঃ ইউসুফ আলী মন্ডল গত ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ সালে জেলা সদর থেকে সংবাদ প্রেরণ করে বাড়ী ফেরার পথে সিএনজি উল্টে বুকের উপর উঠে গুরুত্বর আহত হন। এতে বামপা ভাঙ্গাসহ শরীরের ১২টি অংশে মাাংস ছিড়ে যায়। দীর্ঘ ৭ মাস ১৭দিন চিকিৎসা নিয়ে প্রাণে বেঁচে যান তিনি। বর্তমানে অপারেশন করে তার বাম উরুতে রড বাঁধাই রয়েছে। গুরুত্বর আহত অবস্থায় প্রথমে শেরপুর পরে ময়মনসিংহউন্নত চিকিৎসার জন্য সিটি হাসপাতালে ট্রমা বিশেষজ্ঞ অর্থোপেডিক সার্জন এ.এস.এম. ডা: ইকবাল হোসেন চৌধুরীর তত্ত্বাবধায়নে চিকিৎসা নেওয়া হয়। চিকিৎসা বাবদ তার ব্যয় হয়েছে ২ লক্ষ টাকা। পরবর্তীতে পুনরায় অপারেশনের মাধ্যমে পায়ের রড খুলে চিকিৎসা করাতে হবে। তিনি পাড়ছেননা হাটতে, প্রাকৃতিক কাজ করতে এমনকি তাকে দাড়িয়ে প্রসাব/পায়খানা করতে হয়। তাই তার চিকিৎসার জন্য পুনরায় প্রায় আড়াই লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন। দরিদ্র এই সাংবাদিকের পরিবারে বিধবা মা ও বোনসহ, স্ত্রী, দুই সন্তান নিয়ে নুন আনতে পানতা ফুরায়। মুক্তিযুদ্ধের স্ব-পক্ষের লেখক যৌবন যশা সাংবাদিক, নতুন প্রজন্মের এই লেখক এ অবস্থায় পড়েছেন নিধারুন কষ্ঠে। এমতাবস্থায় তার পা ভালো করতে তাকে অপারেশন করাতে হবে। যা এমুহুর্তে তার পক্ষে অর্থ ব্যয় করা সম্ভব নয়। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, কৃষি মন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী,ঢাকা বিভাগের হুইপ, শেরপুর জেলা প্রশাসক সহ সংশ্লিষ্টদের সাহায্য কামনা করেন।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা:
মোঃ ইউসুফ আলী মন্ডল
নকলা শেরপুর।
নকলা সোনালী ব্যাংক শাখা সঞ্চয়ী হিসাব নং-১৬৩৪৭
বিকাশ ০১৯৬৯৫৯৭০৭৭