| |

ক্যাপ্টেন মুজিবের মৃত্যুতে এ.কে.এম আব্দুর রফিক এর শোক প্রকাশ

তোমার শোকে আমরা মুহ্যমান। এইতো সেদিনও তুমি ছিলে মুজিব সবার মাঝে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিব সেনানী হয়ে। ঘরদোর, তৃণমূল, সংষার থেকে সংসদ ভবন সবখানে ছিলে তুমি সদা-তৎপর, পরিশ্রমী একজন কাজের মানুষ। জাতির পিতা শেখ মুজিবের আদর্শের সৈনিক হয়ে সদা জাগ্রত থেকেছো তুমি মানষের পাশে। সফল চিকিৎসক সামরিক অফিসার থেকে মাননীয় সংসদ প্রতিমন্ত্রীর আসন করেছো অলঙ্কৃত। চিকিৎসা সেবা তৃণমূল মানুষের দোরগোড়ায় পৌছে দিতে বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলজুড়ে মানবিক কিনিক সেবা ব্যবসায় হয়ে উঠেছো পুরোধা-পথিকৃৎ। বহুমাত্রিক বাস্তবতার মাঝেও তুমি সামাজিক সাংষ্কৃতিক কর্মকা-ে যুক্ত থেকেছো প্রাণের টানে। নিভৃতে একাকী কোনো সন্ধ্যার রাতে তোমার করস্পর্শে বেজে উঠেছে অনুপম সুর।
বাংলাদেশ-বঙ্গবন্ধু- আওয়ামী লীগ ছিলো তোমার হৃদয়ে গাঁথা ।
তোমার প্রেমের কঠিণ পরীক্ষা তো তুমি দিয়েছিলে বাংলাদেশ অভ্যুদয়ে। মুক্তিযোদ্ধা হয়ে দেশকে করেছো মুক্ত-স্বাধীন। আমার সোনার বাংলা শ্লোগান প্রত্যয়ে যেমন উড়িয়েছো চির উদাসীন বাংলাদেশের পতাকা তেমনি সদস্য স্বাধীন দেশের উন্নয়নে থেকেছো প্রতিশ্রুতিবদ্ধ চিরদিন। তোমার পরিশ্রমে-চেষ্টায় গড়ে উঠেছে অনেক একাডেমী, প্রতিষ্ঠান; স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠান থেকৈ শুরু করে নানা বিদ্যাপীঠ মহাবিদ্যালয়সহ গণসংগঠন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি প্রতিষ্ঠায় ছিলে তুমি নির্ভীক। সে চেতনা সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে তোমার নান্দনিক স্থাপনা নির্মাণ থেকে শুরু করে বহুমাত্রিক প্রচার অভিযাত্রা দৃষ্টি কেড়েছে সকল মানুষের। আজ শুধু তোমার নির্বাচনী এলাকায় জনমানুষের বেগে আশ্রয় নয়- অশ্রুতসিদ্ধ আজ সবাই। আমার বেড়ে উঠা বিকাশের শহর, দীর্ঘ জীবনের যাপিত শহরের কতো মুখ আজ বিমর্ষ-মলিন শুধু তোমার বেদনায়, তোমারই শোকে। এখন তো মুজিব তুমি শুধুই ইতিহাস। আমাদের কান্নাঝরা চির আবেগের ডাক নাম তুমি ক্যাপ্টেন মুুজিব। তোমার প্রস্থানে তোমার স্ত্রী- সন্তান পরিবার পরিজন সকলের হৃদয়ের হাহাকার বিষন্নবেলা তাতো আমাদের মনে গহনহৃদয় কোণে জানিয়েছে বেদনার মেঘ, করেছে শোকার্ত বেদনাবিদুর।
আমরা বেদনাকে করবো শক্তিকে জাগান্তর। বলবো-বলছি-ক্যাপ্টেন মুজি তুমি আমাদের মাঝে ছিলে, আছো, থাকবে তোমার কর্মদিয়ে আমাদের ভালোাবাসায়।
প্রিয় বাংলাদেশ তোমাকে মনে রাখবে অমলিন ইতিহাসে, সোনার হরফে একজন মুক্তিযোদ্ধার অবদানে।