| |

মোহনগঞ্জে রহস্যময় আগুনে পুড়ে নিহত হল শিশু শিক্ষার্থী

ইন্দ্র সরকার: নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে রহস্যময় আগুনে জ্যান্ত পুড়ে নিহত হলো এভারগ্রীন কিন্ডারগার্টেনের নার্সারীর ছাত্রী শিশু শিক্ষার্থী নাভা আক্তার (৬)। ওই আগুনে নাভার পিতা-মাতাও অগ্নিদগ্ধ হন। উপজেলার বড়তলী বানিয়াহারী ইউনিয়নের বড়তলী গ্রামে মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ নাভার লাশ উদ্ধার করে বুধবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্যে নেত্রকোনা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। এ হৃদয় বিদারক ঘটনায় এভারগ্রীন কিন্ডারগার্টেন স্কুল কর্তৃপক্ষ বুধবার ক্লাশ ও পরীক্ষা বন্ধ ঘোষণা করে।
পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে বড়তলী গ্রামের বাসিন্দা ইলেকট্রিশিয়ান সবুজ মিয়ার বাড়িতে রহস্যময় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ সময় ছাত্রী নাভা আক্তারসহ একই পরিবারের তিনজন দগ্ধ হন। হাসপাতাল সূত্র জানায়, অগ্নিকান্ডে স্কুল ছাত্রী নাভার শরীরের ৮৫ ভাগ, পিতা সবুজ মিয়ার ৪০ ভাগ ও মাতা রিপা আক্তারের ২০ ভাগ অংশ পুড়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকাবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদেরকে দ্রুত উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১২টায় স্কুল ছাত্রী নাভা মারা যায়। তবে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা নিয়ে নানা রহস্যের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। কেউ বলছেন, নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা, আবার কেউ বলছেন নিজ ঘরে থাকা কেরোসিনের কুপি বাতি থেকে এ আগুন, আবার কেউ কেউ বলছেন, পারিবারিক কলহের জেরেই এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। এদিকে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে একটি কুপি বাতি জব্দ করেছে বলে মোহনগঞ্জ থানার এসআই নারায়ন সরকার জানান। মোহনগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন জানান, কুপি বাতির আগুন থেকে এ অগ্নিকান্ড ঘটে থাকতে পারে। তবে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনে তদন্ত চলছে।